রাজ্যে আর নতুন কোনও টোটো নয়, জানাল রাজ্য সরকার

রাজ্যে আর নতুন কোনও টোটো নয়, জানাল রাজ্য সরকার

রাজ্যে আর কোনও নতুন টোটো নয়। হাইকোর্টে হলফনামা দিয়ে একথা জানাল রাজ্য সরকার। একইসঙ্গে টোটো দুর্ঘটনায় সরকার বিমার ব্যাপারে ভাবনা চিন্তা করছে বলেও উল্লেখ করা হয়েছে হলফনামায়। এ বিষয়ে ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকটি বিমা কোম্পানির সঙ্গেও কথা হয়েছে রাজ্যের। টোটোর যান্ত্রিক আপগ্রেডেশনের জন্য টেকনিক্যাল কমিটি গড়া হচ্ছে বলেও আদালতে জানিয়েছে রাজ্য। মোটর ভেহিকেল আইনের আওতায় আনতে, টোটোর আপগ্রেডেশনের জন্য কেন্দ্রের কাছে আর্জি জানিয়েছে রাজ্য সরকার। তবে এরমধ্যে দুর্ঘটনা ঘটলে রাজ্যকে তা দেখার নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

JNNURM প্রকল্পের বিপুল টাকা ঋণ নিয়ে বিপাকে বাস মালিকরা JNNURM প্রকল্পের বিপুল টাকা ঋণ নিয়ে বিপাকে বাস মালিকরা

যাত্রীদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে নামানো হয়েছিল JNNURM প্রকল্পের প্রায় ১৪০০ বাস। কিন্তু বসে গিয়েছে প্রায় অর্ধেক বাস। রক্ষণাবেক্ষণ এবং পরিকল্পনার অভাবকেই দায়ী করছেন বেসরকারি বাস মালিকরা। বিপুল ঋণ শোধ করবেন কীভাবে, মাথায় হাত তাঁদের।

কীভাবে জট কাটল ইস্ট-ওয়েস্ট ও জোকা মেট্রো প্রকল্পের? কীভাবে জট কাটল ইস্ট-ওয়েস্ট ও জোকা মেট্রো প্রকল্পের?

জোকা ও ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পে কোনও জটিলতা দেখা দিলে তা যৌথভাবে মেটাবে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার। জোকা প্রকল্পে প্রয়োজনে পুনর্বাসনও দেবে রাজ্য। আজ রেলমন্ত্রীকে পাশে বসিয়ে একথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একই সঙ্গে তিনি জানান, রেল সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রোর কাজ হবে দুভাগে। প্রথমভাগে হবে সেক্টর ফাইভ থেকে শিয়ালদা পর্যন্ত। দ্বিতীয় ভাগে কাজ হবে হাওয়া ময়দান থেকে শিয়ালদহ পর্যন্ত। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, যেভাবেই কাজ হোক, রাজ্য চায় দ্রুত শেষ হোক প্রকল্প।

নির্বাচন পরিচালনার জন্য পৃথক পরিকাঠামো চায় রাজ্য নির্বাচন পরিচালনার জন্য পৃথক পরিকাঠামো চায় রাজ্য

নির্বাচন পরিচালনার জন্য তৈরি হোক পৃথক একটি পরিকাঠামো। গড়া হোক পৃথক তহবিল। নবান্ন সূত্রে খবর, এই মর্মে প্রস্তাব আনার কথা ভাবছে রাজ্য সরকার। ভোটের বিজ্ঞপ্তি জারি হলেই রাজ্যের প্রশাসন ও পুলিস চলে যায় নির্বাচন কমিশনের হাতে। সমস্যা হয় রাজ্য সরকারের কাজকর্মে। বেশকয়েকমাসের জন্য থমকে যায় উন্নয়নের কাজ। সমস্যা সমাধানে মঙ্গলবারই নির্বাচনী সংস্কারের উপর জোর দেওয়ার ইঙ্গিত দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

কে কোন দফতর পেলেন নতুন মুখের মন্ত্রীরা? কে কোন দফতর পেলেন নতুন মুখের মন্ত্রীরা?

কমবেশী তিনমাস সময়। যুদ্ধ যুদ্ধ রব তুলে শুরু প্রচার। তারপর ঘনিয়ে এল সেই যুদ্ধের দিন। শুরু হল ভোট যুদ্ধ। ৬ দফায় সাতদিন ধরে চলল সেই যুদ্ধ। ভোট দিলেন রাজ্যবাসী। অবশেষে গত ১৯ মে সেই যুদ্ধের ক্লাইম্যাক্স টানা হল। জয়ী হল একদল। হারল বহু। রাজ্যের মসনদে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফের আসীন করলেন তাঁর সেনাপতিরা। তবে, এবার শুধু সেই পুরনো সেনাপতিরাই নন, দলে যোগ দিয়েছেন নতুনরাও।

কাশ্মীর থেকে কেরল, পশ্চিমবঙ্গ থেকে মহারাষ্ট্র, কোন রাজ্যে কার সরকার কাশ্মীর থেকে কেরল, পশ্চিমবঙ্গ থেকে মহারাষ্ট্র, কোন রাজ্যে কার সরকার

রাত পোহালেই জোড়া উত্‍সব। একদিকে, কেন্দ্রে 'আচ্ছে দিন' সরকারের দ্বিতীয় বর্ষপূর্তি। অন্যদিকে, পশ্চিমবঙ্গে দ্বিতীয় বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিতে চলেছেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবারের বিধানসভা নির্বাচনের আগে প্রচারে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দাবি করেছিলেন, ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে কেন্দ্রে নির্ণায়ক ভূমিকা নেবে তৃণমূল কংগ্রেস। অন্যদিকে, কংগ্রেস ও বিজেপি একে অপরের বিরুদ্ধে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে বলে দাবি করেছে।

জানেন কী, এই মুহূর্তে দেশের কোন কোন রাজ্য কংগ্রেসের দখলে? জানেন কী, এই মুহূর্তে দেশের কোন কোন রাজ্য কংগ্রেসের দখলে?

এ কোন পথে চলেছে কংগ্রেস? স্বাধীনতার পর এই প্রথম দেশে কংগ্রেসের হাল এতটা খারাপ। অন্তত রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা তাই বলেছেন। ভারেতর ২৯টি রাজ্যের মধ্যে মাত্র ৫টি রাজ্যে এককভাবে কংগ্রেস সরকার রয়েছে। আর বাকি এক রাজ্য ও একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে কংগ্রেস নেতৃত্বধীন জোট সরকার রাজত্ব করছে।

ভোটের মুখে সরকারি মেডিক্যাল কলেজে ছাত্র ভর্তির ছাড়পত্রের অস্বস্তিতে রাজ্য ভোটের মুখে সরকারি মেডিক্যাল কলেজে ছাত্র ভর্তির ছাড়পত্রের অস্বস্তিতে রাজ্য

বছর গড়িয়ে গেলেও শর্ত পূরণ করতে পারেনি রাজ্য সরকার। প্রয়োজনীয় পরিকাঠামোয় রয়ে গেছে বিস্তর গলদ। MCI-এর পরীক্ষায় ডাহা ফেল রাজ্যের ৮টি সরকারি কলেজ। মিলল না MBBS-এর সাড়ে ৫০০ আসনে ছাত্র ভর্তির ছাড়পত্র। এর জেরে ভোটের মুখে অস্বস্তিতে রাজ্য।

উত্তরাখণ্ডে জারি হয়ে গেল রাষ্ট্রপতি শাসন উত্তরাখণ্ডে জারি হয়ে গেল রাষ্ট্রপতি শাসন

অরুণাচলের পর এবার পালা উত্তরাখণ্ডের। উত্তরের এই রাজ্যে জারি হয়ে গেল রাষ্ট্রপতি শাসন। মূলত রাজ্যপালের রিপোর্টের ভিত্তিতেই রাষ্ট্রপতি শাসনের সুপারিশে সিলমোহর দিলেন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি।

ভোটে জঙ্গলমহল থেকে কেন্দ্রীয় বাহিনী সরানোয় আপত্তি রাজ্যের ভোটে জঙ্গলমহল থেকে কেন্দ্রীয় বাহিনী সরানোয় আপত্তি রাজ্যের

বিধানসভা ভোটে জঙ্গলমহল থেকে কেন্দ্রীয় বাহিনী সরানো সম্ভব নয়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রককে একথা জানিয়ে দিল রাজ্য সরকার। রাজ্যের যুক্তি,  ঝাড়খণ্ড সীমান্ত দিয়ে মাঝ্যেমধ্যেই এরাজ্যে যাওয়া আসা করছে মাওবাদীরা। এই অবস্থায় বাহিনী সরালে জঙ্গলমহলের শান্তি বিঘ্নিত হতে পারে।

রাজ্যের সমস্ত বিদ্যালয়ে জাতীয় সঙ্গীত গাওয়া বাধ্যতামূলক করল রাজ্য সরকার রাজ্যের সমস্ত বিদ্যালয়ে জাতীয় সঙ্গীত গাওয়া বাধ্যতামূলক করল রাজ্য সরকার

রাজ্যের সমস্ত স্কুলে এবার স্কুল শুরুর সময় জাতীয় সঙ্গীত গাওয়া বাধ্যতামূলক। এমনই নির্দেশ দিল রাজ্য সরকার। রাজ্য সরকারের নির্দেশের ভিত্তিতে ইতিমধ্যেই নির্দেশিকা জারি করেছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ।

জলকর বসানোয় রাজি নয় রাজ্য সরকার জলকর বসানোয় রাজি নয় রাজ্য সরকার

ভোট বড় বালাই। তাই কেন্দ্র প্রকল্পের বরাদ্দ টাকা কাটলেও সাধারণ মানুষের ওপর জলকর বসাতে রাজি নয় রাজ্য সরকার। পরিবর্তে ব্যবসায়ীদের কাছে জল বিক্রি করে ঘুরপথে সমাধানের রাস্তায় হাঁটতে চলেছে রাজ্য। তবে জলকর না নিলেও অপচয় রুখতে গৃহস্থ বাড়িতে মিটার বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুর ও নগরোন্নয়ন দফতর।

পুজোর বাকি মাত্র ৫দিন, তবু বোনাস/অগ্রিম পাননি রাজ্য সরকারি কর্মীদের একাংশ পুজোর বাকি মাত্র ৫দিন, তবু বোনাস/অগ্রিম পাননি রাজ্য সরকারি কর্মীদের একাংশ

পুজোর বাকি মাত্র ৫দিন। অথচ, এখনও বোনাস বা অগ্রিম পাননি রাজ্য সরকারি কর্মীদের একাংশ। এক্সগ্রাশিয়া পাননি অবসরপ্রাপ্ত কর্মীরাও। দেড়মাস আগে অর্থমন্ত্রীর ঘোষণার পরও কেন মিলল না বোনাস? ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন কর্মীরা।

অব্যাহত দুয়োরানি দশা, কেন্দ্রীয় সরাকারি কর্মীদের থেকে ৬১% কম ডিএ পাচ্ছেন রাজ্যের পরিবহণ কর্মীরা অব্যাহত দুয়োরানি দশা, কেন্দ্রীয় সরাকারি কর্মীদের থেকে ৬১% কম ডিএ পাচ্ছেন রাজ্যের পরিবহণ কর্মীরা

কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের থেকে  রাজ্য সরকারি কর্মীরা চুয়ান্ন শতাংশ ডিএ কম পাচ্ছেন। সরকারি পরিবহণ কর্মীদের অবস্থা আরও খারাপ। তাঁদের ক্ষেত্রে ফারাকটা একষট্টি শতাংশ। জানুয়ারি মাসে রাজ্য সরকার সাত শতাংশ মহার্ঘ ভাতা ঘোষণা করলেও সরকারি পরিবহণ কর্মীদের ভাগ্যে তা জোটেনি। মন্ত্রীমশাই জেল হেফাজতে। কবে ছাড়া পাবেন কেউ জানে না। সিবিআইয়ের খাঁড়া মাথায় নিয়ে পিজি-র কেবিনে বড্ড মন খারাপ। তবে, তার চেয়েও খারাপ অবস্থা রাজ্যের সরকারি পরিবহণ কর্মীদের। তাঁদের কথা ভাবার কেউ নেই । মন্ত্রী থেকেও নেই। তাই, নড়ছে না ফাইল। মিলছে না ডিএ।

মহিলাদের উন্নয়নে জেন্ডার বাজেট সিস্টেম নিয়ে আসছে রাজ্য মহিলাদের উন্নয়নে জেন্ডার বাজেট সিস্টেম নিয়ে আসছে রাজ্য

চাকরি, শিক্ষাসহ সবক্ষেত্রেই রাজ্যে পিছিয়ে রয়েছে মেয়েরা। তাঁদের উন্নয়নে এবার তাই জেন্ডার বাজেট সিস্টেম চালু করল রাজ্য সরকার। আপাতত ২১টি দফতরে চালু হচ্ছে এই সিস্টেম। রাজ্যের দাবি, এমন ব্যবস্থা

সারদা শিক্ষা নিয়ে র‌্যামেল গ্রুপের বিরুদ্ধে তদন্তে রাজ্য সরকার সারদা শিক্ষা নিয়ে র‌্যামেল গ্রুপের বিরুদ্ধে তদন্তে রাজ্য সরকার

এবার নজরে বেআইনি অর্থলগ্নি সংস্থা র‍্যামেল গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ। বাজার থেকে বেআইনিভাবে টাকা তোলার অভিযোগে এই সংস্থার বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে রাজ্য সরকার। প্রশ্ন উঠছে সারদা থেকে শিক্ষা নিয়েই কি র