নারকেল তেলের এই অজানা গুণগুলি জানেন?

নারকেল তেলের এই অজানা গুণগুলি জানেন?

নারকেল তেল আমাদের কী কাজে লাগে? প্রথম উত্তরই আসবে, স্নানের আগে মাথায় মাখতে। এরপরের উত্তর হল রান্নায়। প্রায় গোটা দক্ষিণ ভারতেই নারকেল তেলে রান্না হয়। কেউ কেউ বলবেন, নারকেল তেল শুষ্ক ত্বকের জন্য খুব ভালো। ভিটামিন K, E ও আয়রনে সমৃদ্ধ  নারকেল তেলের এছাড়াও আরও কয়েকটি গুণ আছে। কী জানেন?

সানস্ক্রিন মাখুন কিন্তু বিপদটাও জানুন সানস্ক্রিন মাখুন কিন্তু বিপদটাও জানুন

গরমকাল এলেই আমাদের হাজার একটা ভয় থাকে। এই বুঝি কালো হয়ে গেলাম। এই বুঝি বেশি রোদে ঘোরায় আমায় দেখতে খারাপ হয়ে গেল। এরকম সব। রোদের হাত থেকে বাঁচতে তখন আমরা সানস্ক্রিন ব্যবহার করি। কিন্তু জানেন কি, আমরা সকলেই সানস্ক্রিন ব্যবহার করার সময় কী কী ভুল করে ফেলি?

গরমে ত্বকের যত্ন নেবেন কীভাবে গরমে ত্বকের যত্ন নেবেন কীভাবে

ফেব্রুয়ারিতেই পারদ ছুঁয়েছে ৩৭ডিগ্রি। দুদিন বৃষ্টি হলেও গরম থেকে রেহাই মিলছে না। ফাগুনেই বৈশাখের রোদ। এই অবস্থায় ত্বক ভাল রাখবেন কী করে, আসুন জেনে নেওয়া যাক।

সুস্থভাবে শীতকাল কাটানোর কিছু সহজ টিপস সুস্থভাবে শীতকাল কাটানোর কিছু সহজ টিপস

শীত প্রায় চলেই এসেছে শহরে। গরমকালের প্যাচ প্যাচে আবহাওয়ার ছুটি এবার। সমস্ত বয়সের মানুষের কাছে এই কালটি খুবই আরামদায়ক। শরীর খারাপ হওয়ার ভয়েই থাকে না এই কালে। শীতকাল মানেই আমাদের মনে যেটা প্রথমে আসে সেটা হল খেজুরের রস। এছাড়া খেজুরের রস মানেই তো নতুন গুড়ের রসগোল্লা থেকে সন্দেশ! এরপর ঘুরতে যাওয়া, পিকনক করা, জমিয়ে খাওয়া-দাওয়া করা, আড্ডা মারা এই সব কিছু তো আছেই। শুধু গায়ে একটা গরম জামা চাপিয়ে নিলেই হল।    

শীতকাল ভালো কাটানোর কিছু সহজ উপায় শীতকাল ভালো কাটানোর কিছু সহজ উপায়

শীতকাল অনেকের কাছেই খুব প্রিয় আবার অনেকের কাছে খুবই কষ্টের। শীতকাল মানেই প্রথমে যেটা মাথায় আসে সেটা হল সকালে ঘুম থেকে উঠে স্নান করতে হবে। কিভাবে করব! ওহ! সকাল সকাল কম্বলের তলা থেকে যে বেরতেই ইচ্ছে করে না। আবার ঘুম থেকেও উঠলাম আর স্নানও করলাম, কিন্তু গায়ে খালি খড়ি ফোটে যে। তাও আবার ম্যানেজ করতে হবে। কিন্তু খারাপের সঙ্গে সঙ্গে ভালো গুলিও যে আছে। শীতকাল মানেই যা খুশি তাই খাও পেট খারাপ হওয়ার কোনও চান্স নেই। আর কনকনে ঠান্ডায় আইসক্রিম খাওয়ার মজাটাও একেবারেই আলাদা। তবে ভালো খারাপের মধ্যে এমন কিছু জিনিষ আছে যা করলে এই কালটিকে উপভোগ করা যাবে একেবারে মনের মত করে। কী ভাবে? তবে এবার দেখে নেওয়া যাক............

রোদচশমা

গরমের দিনে বেলা ১১টা থেকে দুপুর ৩টে অবধি বাইরে না বেরনোই ভাল। এই সময়ই সূর্যের মেজাজটা সর্বাধিক উত্তুঙ্গে থাকে। তীব্র রোদে ত্বক স্রেফ পুড়ে বত্রিশ ভাজা হয়ে যায়।