মেয়েরা জিনস পড়ছে, তাই ভূমিকম্প হচ্ছে, মন্তব্য JUI-F প্রধানের মেয়েরা জিনস পড়ছে, তাই ভূমিকম্প হচ্ছে, মন্তব্য JUI-F প্রধানের

ভূমিকম্পের আসল কারণ যাই হোক না কেন সে বিষয়ে এর আগে অনেকেই 'বিচিত্র' মতামত দিয়েছেন। কেউ বলেছেন গোরু খাওয়ার ফলেই নাকি কাঁপছে মাটি, কেউ বলেছিলেন নির্দিষ্ট ধর্মের ছাতার তলায় না গেলে এভাবেই 'ঈশ্বরের' রোষানলে পড়তে হবে। এবার নয়া এক 'আজগুবি' তত্ত্বের হদিশ পাওয়া গেল। ইসলামাবাদে একটি সাংবাদিক সম্মেলনে জামিয়াত উলেমা-ই-ইসলামি ফজল (JUI-F)-এর মুখ্য মৌলনা ফজলুর রহমান বললেন মেয়েদের জিনস পড়াই ভূমিকম্পের মত বিপর্যয়ের কারণ। তিনি দাবি করেছেন, পাক সরকার যেন সশস্ত্র বাহিনীর মাধ্যমে এখনই একটি মিলিটারি অপরেশন করে সে দেশে মহিলাদের জিনস পড়ার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে।   

রাজ্যে নারী পাচার রুখতে প্রতি গ্রামে তৈরি হচ্ছে ভিলেজ প্রোটেকশন কমিটি রাজ্যে নারী পাচার রুখতে প্রতি গ্রামে তৈরি হচ্ছে ভিলেজ প্রোটেকশন কমিটি

নারী পাচার রুখতে রাজ্যের প্রতিটি গ্রাম ও  ব্লক স্তরে সরকারি উদ্যোগে তৈরি হচ্ছে ভিলেজ প্রোটেকশন কমিটি।  পাচার রুখতে এই কমিটি  প্রতি গ্রামে প্রচার এবং নজরদারি চালাবে। এ রাজ্যে  সরকারিভাবে এধরনের উদ্যোগ এই প্রথম। প্রতিদিনই রাজ্যে থেকে পাচার হয়ে যাচ্ছে বহু শিশু ও নারী। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই অভাব-অনটনের সুযোগ নিয়ে কাজের লোভ দেখিয়ে অন্ধকার জগতে পাচার করে দেওয়া হয় মেয়েদের।   শুধু প্রত্যন্ত জেলাগুলিতেই নয়,  খোদ কলকাতাতেও বাড়ছে নারী পাচারের হার । এই সমস্যার মোকাবিলায় ইতিমধ্যেই সক্রিয় একাধিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। তবে  এই প্রথম নারী ও শিশু পাচার রুখতে উদ্যোগী রাজ্য সরকার। শিশু ও নারী পাচার ঠেকাতে  একটি কমিটি তৈরি করছে নারী ও শিশু কল্যাণ মন্ত্রক। কমিটিতে থাকছেন পুলিস, পঞ্চায়েতের প্রতিনিধি, শিক্ষক-শিক্ষিকা, অভিভাবকদের প্রতিনিধি, আইসিডিএস কর্মীরা।