শুধু তোমারই জন্য...

Last Updated: Monday, February 11, 2013 - 23:16

বাঙালির বারো মাসে তেরো পার্বণ। আর মদন বাণে বিদ্ধ বসন্তের শুভারম্ভে দিল-কি-গলিতে আছাড় খাওয়া পাবলিকের মহাপার্বণ, প্রেমোৎসব।
পুজো আর্চার বিষয় যখন, তখন উপাচারের জোগারযন্ত্র তো করতেই হয়। খরচ-পাতির বহরটা অবশ্যই ঠিক করুন রেস্ত বুঝে। কারণ দেব/দেবীকে তুষ্ট করতে 'গিফট অফ ম্যাজাই'এর কনসেপ্ট কিন্তু যুগের ফেরে অস্তাচলে।
দেব/দেবীর পছন্দের কথা মাথায় রেখেই নৈবেদ্য সাজান। রেস্তর আতিশয্য প্রদর্শনে ছেড়ে মনের মণিকোঠায় ঠাঁই পেতে পারে এমন সম্ভাব্য টুকিটাকিতে নজর দিন।
আপনার বরণ ডালা সাজাতে আমাদের কিছু হ্যান্ডি টিপস:
সুগন্ধি: বডি স্প্রে নৈব নৈব চ। পারফ্যুম 'ইয়েস ইয়েস'।
ফুল: একমেবাদ্বিতীয়ম্‌ গোলাপ। এবং স্ট্রিক্টলি লাল। তিন ডজন হোক বা এক খানা, সত্য যুগ থেকেই সুপার হিট।
বসন: আবারও মূল মন্ত্র লালে জোর। লাল টাই, লাল স্কার্ফ, লাল লঁজারি, লাল স্কার্ট, লাল কুর্তি। বোর হবেন না। ট্রাই করুন বিভিন্ন শেডস। অবার্ন লাল, স্কারলেট লাল, কোরাল লাল, রক্তে লাল, আগুনে লাল, চুনী লাল... মনে রাখবেন এ দিনের টুইট, 'রেড শি সেইড'।
অলঙ্কার: পকেটে কুলোলে হিরের নাকছাবি, স্বর্ণোঙ্গুরীয় অনবদ্য। আজকাল তো স্বর্ণকারেরা পসরা সাজিয়ে ফেব্রুয়ারি ১৪-র অপেক্ষায় থাকেন। এক স্বর্ণকার বন্ধু সেদিন জানালেন, বিয়ের মরশুমকেও পেনডেন্ট বিক্রিতে হার মানায় ভ্যালেন্টাইন্স ডে। এক ছরা মুক্তোও প্রাণাধিকপিয়ার হৃদয় ছুঁয়ে যাবে, নিশ্চিত। মন কাড়া কস্ট্যুম জুয়েলারিও খুবই ইন। তবে প্রেম দিবসে পথ চলতি জাঙ্ক এড়িয়ে চলুন। এর জন্য সারা বছরই তো পড়ে আছে।
মনে রাখবেন, এ যুগের অলঙ্কার কিন্তু শুধুমাত্র দেবী নয়, দেবেরও নজর কাড়ে।

এসব তো গেল বাজারি আয়নায় প্রেম পুজোর নৈবেদ্য।
এবার আসল মনের কথায় আসি। প্রিয় মানুষের মন ছুঁতে আপনার উপহারে মেশান নিজের হাতের ছোঁয়া। মনের রঙ মেশান কার্ডে। রঙিন কাগজ কেটে সেঁটে দিন তাতে। লিখুন আপনার মনের কথা। বাড়িতে বানিয়ে ফেলুন ছোট্ট একটা কেক। তার উপর আইসিং করে লিখে দিন আপনার মেসেজ। হাতের কাজ জানলে পরিকল্পনা করুন আরেকটু আগে। এক জোড়া দস্তানা অথবা একটা টুপি যদি বানিয়ে ফেলতে পারেন তাহলে তো কথাই নেই। দোকান থেকে নোটবই কিনে তাতে মলাট দিন রঙিন হ্যান্ড মেড পেপারে। তাতে চুঁইয়ে দিন দোয়াতের কালি। পুরোনো হয়ে যাওয়া টুথব্রাশে অল্প রঙ দিয়ে ঝিরঝির স্প্রে করুন মলাটে। ক্যালিগ্রাফি কলমে লিখে দিন, 'শুধু তোমারই জন্য...'



First Published: Monday, February 11, 2013 - 23:38


comments powered by Disqus