অভিশপ্ত সাতের লজ্জায় প্রলেপ দিতে আজ তিন নম্বরের যুদ্ধে কমলা ব্রিগেডের মুখোমুখি সাম্বার দেশ

Last Updated: Saturday, July 12, 2014 - 09:37

শনিবার রাতে বিশ্বকাপের তৃতীয় ও চতুর্থ স্থান নির্ণায়ক ম্যাচে মুখোমুখি ব্রাজিল ও নেদারল্যান্ডস। সাত গোলে হারের ধাক্কা কাটিয়ে মানসিকভাবে কতটা ঘুরে দাঁড়াতে পারবে সাম্বা ব্রিগেড? পরীক্ষার সামনে টিম স্কোলারি। সম্মানরক্ষার ম্যাচের আগে সতীর্থদের সঙ্গে দেখা করলেন নেইমার।

শনিবার ব্রাসিলিয়ায় বিশ্বকাপের তৃতীয় ও চতুর্থ স্থান নির্ণায়ক ম্যাচে মুখোমুখি ব্রাজিল ও নেদারল্যান্ডস। গুরুত্বহীণ ম্যাচের আগে ডাচদের থেকে বেশি চাপে সাম্বা ব্রিগেড। জার্মানির কাছে সাত গোলে হারের লজ্জা। ফুটবল ইতিহাসে কালো অধ্যায় ব্রাজিলের। এই বিপর্যয় কাটিয়ে কতটা ঘুরে দাঁড়াতে পারবে স্কোলারি ব্রিগেড? তারই পরীক্ষা ব্রাসিলিয়ার মাঠে। এমনিতেই বিশ্ব ফুটবলের সেরা মঞ্চে এই ধরণের ম্যাচে নিজেদের মোটিভেট করা কঠিন। তবে হতাশাজনক হারের পর ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া সেলেকাওরা।

এই ম্যাচেও হার মানে আরও বেশি করে সমর্থকদের ব্যারাকিংয়ের মুখে পড়া। সেই সঙ্গে মানসিকভাবে আরও পিছিয়ে পড়বে পাঁচবারের চ্যাম্পিয়নরা। সম্মানরক্ষার ম্যাচের আগে দলের সঙ্গে বেস ক্যাম্পে যোগ দিলেন ওয়ান্ডার বয় নেইমার। কথা বললেন কোচ স্কোলারি ও ফুটবলারদের সঙ্গে। নেইমারকে কাছে পেয়ে গুমোট ভাব উধাও ব্রাজিল শিবিরে। গ্যালারিতে নেইমারের উপস্থিতি আত্মবিশ্বাসের তলানিতে থাকা ডেভিড লুইজদের বাস্তবে কতটা সাহায্য করবে, সেই প্রশ্নের সামনে দাঁড়িয়ে টিম স্কোলারি। ডাচদের বিরুদ্ধে সাত গোল খেলেও দলে বিশেষ পরিবর্তনের জায়গা নেই। কার্ড সমস্যা কাটিয়ে ফিরছেন অধিনায়ক থিয়াগো সিলভা। ফেড, হাল্ক, অস্কারদের পারফরমেন্স মাইক্রোস্কোপের তলায়। অন্যদিকে আর্জেন্টিনার কাছে টাইব্রেকারে হেরে ব্রাজিলের মুখোমুখি কমলা ব্রিগডে। বিশ্বকাপে এই গুরুত্বহীণ ম্যাচ রাখা নিয়ই প্রশ্ন তুলেছেন ডাচ কোচ ভ্যান গাল। শনিবারের ম্যাচ থেকে বিশেষ কিছু পাওয়ার নেই রবেন, স্নাইডারদের। তবু সম্মানরক্ষার তাগিদই তাতাচ্ছে তাদের।
এর আগে মোট এগারোবার মুখোমুখি হয়েছে এই দুই দেশ। দুটো দলই তিনটে করে ম্যাচ জিতেছে। পাঁচটা ম্যাচ অমিমাংসিতভাবে শেষ হয়।

২০১০ সালের বিশ্বকাপের প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে ব্রাজিলকে হারিয়েছিল নেদারল্যান্ডস।



First Published: Saturday, July 12, 2014 - 09:37
comments powered by Disqus