পাকিস্তানে অর্থসাহায্য বন্ধ করতে চলেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র

পাকিস্তানে অর্থসাহায্য বন্ধ করতে চলেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র

পাকিস্তানে অর্থসাহায্য বন্ধ করতে চলেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রপাকিস্তানকে যাবতীয় অর্থসাহায্য বন্ধ করতে বিল পেশ হল মার্কিন কংগ্রেসে । প্রস্তাবটি এনেছেন টেক্সাসের কংগ্রেস সদস্য টেড পো । তাঁর দাবি ,অ্যাবটাবাদে লাদেনের মৃত্যুর পর থেকেই পাকিস্তান মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষে বিপজ্জনক হয়ে উঠেছে । বিলে বলা হয়েছে, পাকিস্তান সরকার আমেরিকা থেকে কোটি কোটি ডলার সাহায্য নেয় । আবার যেসব সন্ত্রাসবাদী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আঘাত হানতে তত্‍পর তাদের মদত যোগায় । পাকিস্তান সরকার আমেরিকার সঙ্গে দ্বিচারিতা এবং শঠতা করছে বলেও মন্তব্য করা হয়েছে ওই প্রস্তাবে । পাকিস্তানে অর্থসাহায্য বন্ধ করতে চলেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
দু সপ্তাহ আগে কাবুলের মার্কিন দূতাবাস লক্ষ্য করে হামলা চালিয়েছে তালিবান জঙ্গিরা । আক্রান্ত হয়েছে নেটোর সদর দফতর । মার্কিন গোয়েন্দারা ওই নাশকতার জন্য জঙ্গি নেতা সিরাজুদ্দিন হাক্কানিকে দায়ী করছেন । তাদের দাবি,দূতাবাসে হামলা চালানোর সময় সন্ত্রাসবাদীরা টেলিফোনে কথা বলেছে । সেই টেলিফোনগুলির সূত্র ধরেই পাক গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইকে কাঠগড়ায় তুলেছে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার প্রশাসন । আমেরিকার জয়েন্ট চিফ অফ স্টাফ কমিটির চেয়ারম্যান মাইর মুলেনের দাবি,জঙ্গি গোষ্ঠী হাক্কানি নেটওয়ার্কের সঙ্গে যোগাযোগ রয়েছে আইএসআইয়ের । কাবুলের নাশকতার সময় জঙ্গিরা পাক গোয়েন্দাদের সঙ্গে নিয়মিত কথাও বলেছে ইসলামাবাদের সন্ত্রাসবাদদমন বিশেষজ্ঞ আগা মাসুদ হুসেনের পাল্টা দাবি সিরাজ হাক্কানি তো পাকিস্তানেই নেই । তাহলে পাকিস্তান সরকার তার বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেবে ।

নেভি সিলসদের ঝটিকা অভিযানে ওসামা বিন লাদেনের মৃত্যুর পর থেকেই তিক্ত হচ্ছিল পাক-মার্কিন দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক । মার্কিন গোয়েন্দাদের একাংশের সন্দেহ,অ্যাবটাবাদে সৌদি সন্ত্রাসবাদীর গোপন ডেরার কথা পাক সেনাবাহিনী জানত । বস্তুত পাক প্রশাসনের কোনও কোনও শীর্ষ কর্তার মদতেই এতদিন লাদেনের উপস্থিতি গোপন রাখা হয়েছিল বলেও মনে করেন তাঁরা । মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে উষ্ণ সম্পর্ক পাকিস্তানের বহু নাগরিকেরও চক্ষুশূল । দুই রাষ্ট্রের চাপান-উতোরের সুবাদে ইসলামাবাদ ,করাচিতে ফের ছড়াতে শুরু করেছে অন্ধ মার্কিন বিদ্বেষ ।পাকিস্তান সরকারকে যাবতীয় অর্থসাহায্য বন্ধ করতে একটি বিল পেশ হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হাউস অফ রিপ্রেজেন্টেটিভসে ।

First Published: Wednesday, September 28, 2011, 11:54


comments powered by Disqus