ধর্মীয় রাজনৈতিক দলের বিরুদ্ধে বাংলাদেশে ধর্মঘট বামেদের

ধর্মীয় রাজনৈতিক দলগুলিকে নিষিদ্ধ ঘোষণার দাবি ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার দ্রুত সম্পন্ন করার দাবিতে গতকাল বাংলাদেশে ধর্মঘটের ডেকেছিল বামপন্থীরা। তারই প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার পাল্টা ধর্মঘটের ডাক দিল বারোটি ইসলামিক দল। তবে এই ধর্মঘটকে সমর্থন করছে না বাংলাদেশের প্রধান বিরোধী দল বিএনপি।

Updated: Dec 19, 2012, 12:22 PM IST

ধর্মীয় রাজনৈতিক দলগুলিকে নিষিদ্ধ ঘোষণার দাবি ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার দ্রুত সম্পন্ন করার দাবিতে গতকাল বাংলাদেশে ধর্মঘটের ডেকেছিল বামপন্থীরা। তারই প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার পাল্টা ধর্মঘটের ডাক দিল বারোটি ইসলামিক দল। তবে এই ধর্মঘটকে সমর্থন করছে না বাংলাদেশের প্রধান বিরোধী দল বিএনপি।
নির্দল সরকারের তত্ত্বাবোধানে নির্বাচন করার দাবিতে গত সপ্তাহে বাংলাদেশে সাধারণ ধর্মঘট ডেকেছিল বিএনপি নেতৃত্বাধীন আঠারো দলের বিরোধী জোট। সেই ধর্মঘটে দেশের বিভিন্ন শহরে হিংসার ঘটনা ঘটেছিল। এরপর বাংলাদেশে সমস্ত ধর্মীয় রাজনৈতিক দলগুলিকে নিষিদ্ধ করার দাবিতে মঙ্গলবার ফের ধর্মঘটের ডাক দেয় কমিউনিস্ট পার্টি অফ বাংলাদেশ। তবে এবার কোথাও কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। ফলে মঙ্গলবারের ধর্মঘট ছিল মোটের উপর শান্তিপূর্ণ।
বাংলাদেশে ধর্মীয় রাজনৈতিক দলগুলিকে নিষিদ্ধ করার যে দাবি তুলেছে বামপন্থীরা, তার কড়া সমালোচনা করেছে বিরোধী জোটে থাকা একাধিক রাজনৈতিক দল। যার মধ্যে অন্যতম হল ন্যাশনাল ডেমোক্র্যাটিক পার্টি, মুসলীম লিগ, জামিয়তি উলেমা ইসলাম, ইসলামিক পার্টি। এরই প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার ফের দেশজুড়ে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে তারা।
তবে সেই ধর্মঘটে থাকবে না বলে জানিয়েছে বাংলাদেশের প্রধান বিরোধী দল বিএনপি। ধর্মঘটে অংশগ্রহণকারি দলের তালিকায় তাদের নাম থাকলেও, এনডিপি, বাংলাদেশ ন্যাপ এবং ন্যাপ ভাসানী - এই তিনটি দলও কুড়ি তারিখের ধর্মঘটে যোগদানের ব্যাপারে চূড়ান্ত সম্মতি জানায় নি।