বিরোধীদের ডাকা ধর্মঘটে অচল বাংলাদেশ

নির্দলীয় সরকারের তত্ত্বাবধানে সাধারণ নির্বাচন সম্পন্ন করার দাবিতে মঙ্গলবার ২৪ ঘণ্টার ধর্মঘট পালিত হয় বাংলাদেশে। বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলের বিরোধী জোট এই ধর্মঘটের ডাক দিয়েছিল। ধর্মঘটের আগের দিন সন্ধ্যায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামকে পুলিস গ্রেফতার করে। যার ফলে সোমবার রাত থেকেই ঢাকা, চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন স্থানে গাড়ি ভাঙচুর শুরু করেন বিএনপি সমর্থকরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতার করে পুলিস।

Updated: Dec 12, 2012, 11:14 AM IST

নির্দলীয় সরকারের তত্ত্বাবধানে সাধারণ নির্বাচন সম্পন্ন করার দাবিতে মঙ্গলবার ২৪ ঘণ্টার ধর্মঘট পালিত হয় বাংলাদেশে। বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলের বিরোধী জোট এই ধর্মঘটের ডাক দিয়েছিল।
ধর্মঘটের আগের দিন সন্ধ্যায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামকে পুলিস গ্রেফতার করে। যার ফলে সোমবার রাত থেকেই ঢাকা, চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন স্থানে গাড়ি ভাঙচুর শুরু করেন বিএনপি সমর্থকরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতার করে পুলিস।
ধর্মঘটের দিন হিংসা রুখতে সোমবার রাত থেকেই বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা কয়েকগুন বাড়িয়ে দেওয়া হয়। অপ্রীতিকর ঘটনা রুখতে মোতায়েন ছিল র‍্যাব।
মঙ্গলবার বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গেই চড়তে থাকে উত্তেজনার পারদ। মিরপুর, রমনা, গাবতলি, ঝালকাঠি সহ বিভিন্ন জায়গায় বাস ও গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরেও একটি বাসে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। কয়েকটি জায়গায় বনধ সমর্থকদের সঙ্গে পুলিসের সংঘর্ষও ঘটে। ধর্মঘটের জেরে গতকাল ঢাকা থেকে দূরপাল্লার বাস পরিষেবা ব্যাহত হয়।
তবে রেল পরিষেবা স্বাভাবিক ছিল বলেই দাবি করা হয়েছে। ধর্মঘটের প্রভাব পড়েছিল জলপথেও। বন্ধ ছিল ফেরি চলাচল।