রক্তক্ষয়ী বাংলাদেশে আজ তৃতীয় দিনে হরতাল

Last Updated: Tuesday, March 5, 2013 - 10:24

আজ বিএনপির ডাকে চব্বিশ ঘণ্টার হরতাল শুরু হয়েছে বাংলাদেশে। গতকালই শেষ হয়েছে জামাত-ই-ইসলামির ডাকা আটচল্লিশ ঘণ্টার হরতাল।
গতকালও পুলিসের সঙ্গে জামাত সদস্যদের  সংঘর্ষে নতুন করে আরও চারজনের মৃত্যু  হয়েছে। এর ফলে বাংলাদেশে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৮৪ জন।
গত দুদিনের পর আজও  বাংলাদেশের বিভিন্ন স্কুল, কলেজ, অফিস বন্ধ  রয়েছে। যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির বিরোধিতায়  জামাতকেই সমর্থন জানিয়েছে প্রধান বিরোধী দল বিএনপি। ফলে বিএনপির ডাকা হরতালে আজও নতুন করে হিংসা ছড়ানোর আশঙ্কা রয়েছে। 
গতকাল জামাতের ডাকা হরতালের দ্বিতীয় দিনেও হিংসা অব্যাহত ছিল বাংলাদেশে। নিরাপত্তারক্ষী ও জামাত সমর্থকদের সংঘর্ষে নতুন করে তিনজনের মৃত্যু হয়। বিভিন্ন জেলায় ব্যাপক নাশকতা চালানোর অভিযোগ উঠেছে জামাতের বিরুদ্ধে। আজ বাংলাদেশ জুড়ে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে প্রধান বিরোধী দল বিএনপি। তাকে কেন্দ্র করে ফের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।
সাতক্ষীরায় নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে সংঘর্ষে মৃত্যু হয়েছে দুই জামাত সমর্থকের। সিজারগঞ্জেও এক কিশোরের মৃত্যুর খবর মিলেছে। ব্যাপক নাশকতার খবর পাওয় গেছে দেশের বিভিন্ন অংশে। কমলাপুরে নোয়াখালি থেকে ঢাকাগামী আন্তঃনগর উপকূল এক্সপ্রেসে আগুন লাগিয়ে দেয় জামাত সমর্থকরা। আগুনে ট্রেনের একটি বগি সম্পূর্ণ পুড়ে গিয়েছে।
সিরাজগঞ্জের বিভিন্ন জায়গায় গাছের গুঁড়ি ফেলে নিরাপত্তারক্ষীদের পথ অবরোধের চেষ্টা করা হয়। সংঘর্ষের খবর মিলেছে বগুড়া, জয়পুরহাট ঝিনাইদহ থেকে। ঢাকায়, ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় যেখানে রয়েছেন সেই সোনারগাঁও হোটেলের বাইরে ককটেল বোমা ফাটায় দুই দুষ্কৃতী। যদিও রাজধানী ঢাকা ছিল মোটেরও ওপর শান্ত। জামাতের হরতাল বানচালের ডাক দিয়ে মিছিলে পা মেলান গণজাগরণ মঞ্চের সমর্থকরা।
মঙ্গলবার দেশজুড়ে হরতালের ডাক দিয়েছে প্রধান বিরোধী দল বিএনপি। মঙ্গলবারের হরতালকে কেন্দ্র করে ফের হিংসায় পুড়তে পারে বাংলাদেশ। এ নিয়ে উদ্বেগপ্রকাশ করেছেন দেশের বিশিষ্টজনেরা।



First Published: Tuesday, March 5, 2013 - 10:24


comments powered by Disqus