তালিবানি হুমকি উপেক্ষা করে দেশে ফিরলেন মুশারফ

স্বেচ্ছা নির্বাসন ভঙ্গ করে মে মাসে সাধারণ নির্বাচনে অংশ নিতে প্রায় ৪ বছর পর ফের পাকিস্তানের মাটিতে পা রাখলেন পারভেজ মুশারফ।  ২০০৮ আট সালে পাকিস্তানে সাধারণ নির্বাচনে পরাজিত হয় মুশারফপন্থী পিএমএল-কিউ ইমপিচমেন্ট এড়াতে প্রেসিডেন্ট পদ ছাড়েন পারভেজ মুশারফ।

Updated: Mar 24, 2013, 01:56 PM IST

স্বেচ্ছা নির্বাসন ভঙ্গ করে মে মাসে সাধারণ নির্বাচনে অংশ নিতে প্রায় ৪ বছর পর ফের পাকিস্তানের মাটিতে পা রাখলেন পারভেজ মুশারফ।  ২০০৮ আট সালে পাকিস্তানে সাধারণ নির্বাচনে পরাজিত হয় মুশারফপন্থী পিএমএল-কিউ ইমপিচমেন্ট এড়াতে প্রেসিডেন্ট পদ ছাড়েন পারভেজ মুশারফ।
২০০৯-য়ের এপ্রিলে দেশ ছাড়েন পারভেজ মুশারফ। স্বেচ্ছা নির্বাসনে কখনও লন্ডন, কখনও দুবাই। ২০১০-এ গঠন করেন নিজের রাজনৈতিক দল অল পাকিস্তান মুসলিম লিগ। আরও একবার ভাগ্য পরীক্ষায় আজ দেশে ফিরলেন প্রাক্তন পাক প্রেসিডেন্ট পারভেজ মুশারফ। পাকিস্তানে ফিরলেই পারভেজ মুশারফের ওপর আত্মঘাতী হামলা চালানো হবে। ভিডিও বার্তায় এই হুমকি দিয়েছে তেহরিক-ই-তালিবান। লাল মসজিদে সেনা অভিযানের বদলা নিতেই প্রাক্তন পাক প্রেসিডেন্টকে হত্যার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে তারা। তবে, জঙ্গি হামলার আশঙ্কায় তিনি মোটেই ভীত নন বলে পাল্টা জানিয়ে দিয়েছেন পারভেজ মুশারফ।
আত্মঘাতী জঙ্গি এবং গুপ্তঘাতকদের পুরো একটি বাহিনী তৈরি। দেশে ফিরলেই হত্যা করা হবে পাকিস্তানের প্রাক্তন সেনাপ্রধান পারভেজ মুশারফকে। জঙ্গিগোষ্ঠী তেহরিক-এ-তালিবানের তরফে প্রকাশিত এক ভিডিও বার্তায় এমনই হুমকি দেওয়া হয়।
ভিডিও বার্তায় তেহরিক-এ-তালিবান মুখপাত্র এহেসানউল্লা এহেসান এবং আদনান রসিদকে দেখা গিয়েছে। রসিদ এর আগেও একাধিকবার মুশারফের ওপর হামলার ঘটনায় অভিযুক্ত। ব্রিটেনে স্বেচ্ছা নির্বাসন কাটিয়ে আগামিকাল পাকিস্তানে ফিরছেন মুশারফ। তেহরিক-এ-তালিবানের হুঁশিয়ারি, দেশে ফিরলে মুশারফকে তারা নরকে পাঠাবে। দুহাজার সাত সালে সেনাপ্রধান থাকাকালীন ইসলামাবাদের লাল মসজিদে সেনা অভিযান চালিয়ে বহু জঙ্গিকে হত্যা করেছিলেন পারভেজ মুশারফ। সেই ঘটনার প্রতিশোধ নিতেই মুশারফকে হত্যার হুমকি দিয়েছে তালিবান।