গুপ্তচর সন্দেহে গ্রেফতার হাঁস

পালকের মধ্যে লুকনো ছিল একটি ইলেকট্রনিক যন্ত্র। যার জেরে গ্রেফতার হতে হল বেচারি হাঁসকে। যন্ত্রটি নাকি স্পাই ক্যামেরা। মিশরের নীল নদের দক্ষিণ উপকূল কেনাতে এক জেলে পাঁচটি হাঁস ধরেন। যার মধ্যে এই হাঁসটিও ছিল।

Updated: Sep 1, 2013, 05:51 PM IST

পালকের মধ্যে লুকনো ছিল একটি ইলেকট্রনিক যন্ত্র। যার জেরে গ্রেফতার হতে হল বেচারি হাঁসকে। যন্ত্রটি নাকি স্পাই ক্যামেরা। মিশরের নীল নদের দক্ষিণ উপকূল কেনাতে এক জেলে পাঁচটি হাঁস ধরেন। যার মধ্যে এই হাঁসটিও ছিল।
হাঁসটির পালকের মধ্যে যন্ত্রটি পেয়েই সন্দেহ হয় তাঁর। তখনই তাকে কেনার আরবী উপজাতিদের হাতে তুলে দেন তিনি। তারাই পুলিসে অভিযোগ দায়ের করে। শুক্রবার হাঁসটিকে গ্রেফতার করে পুলিস। নিরাপত্তা ও পরিবেশ বিভাগের কর্মীরা যন্ত্রটি পরীক্ষা করে দেখছে। যদিও যন্ত্রটি কোনও বিস্ফোরক বা স্পাই ক্যামেরা নয় বলে এরমধ্যেই নিশ্চিত হয়েছে পুলিস। জানা গিয়েছে এই যন্ত্রের সাহায্যে ফরাসী বিজ্ঞানীরা পরিযায়ী পাখিদের গতিবিধির ওপর লক্ষ্য রাখেন।
এর আগে গত জানুয়ারী মাসে মিশরের কালুবিয়াতে ধরা পড়ে এক ঝাঁক পায়রা। একজনের পায়ে ছোট্ট একটি কাগজে লেখা বার্তা থেকে তৈরি হয় সন্দেহ। তাকে পাঠানো হয়েছিল তদন্তের জন্য।