মত্সজীবী হত্যা: ভারতে আসছেন ইতালির বিদেশমন্ত্রী

ভারতীয় মত্সজীবীদের গুলি করে হত্যার অভিযোগে ইতালীয় জাহাজের ২ নিরাপত্তারক্ষীকে গ্রেফতারের ঘটনায় এবার ভারতে আসছেন খোদ ইতালির বিদেশমন্ত্রী গিউলিও টার্জি। মঙ্গলবার ইতালির বিদেশমন্ত্রক জানিয়েছে, সোমবার বিদেশমন্ত্রকের কয়েকজন কূটনীতিককে ভারতে পাঠানো হয়েছে।

Updated: Feb 21, 2012, 08:34 PM IST

ভারতীয় মত্সজীবীদের গুলি করে হত্যার অভিযোগে ইতালীয় জাহাজের ২ নিরাপত্তারক্ষীকে গ্রেফতারের ঘটনায় এবার ভারতে আসছেন খোদ ইতালির বিদেশমন্ত্রী গিউলিও টার্জি। মঙ্গলবার ইতালির বিদেশমন্ত্রক জানিয়েছে, সোমবার বিদেশমন্ত্রকের কয়েকজন কূটনীতিককে ভারতে পাঠানো হয়েছে। আগামী সপ্তাহে মঙ্গলবার ভারতে যাবেন বিদেশমন্ত্রী।
ইতালীয় জাহাজের নিরাপত্তারক্ষীদের গ্রেফতারের ঘটনায় ইতিমধ্যেই তীব্র সমালোচনা করেছে রোম। বিদেশমন্ত্রী টার্জি অভিযোগ করেছেন, রাষ্ট্রসঙ্ঘের সনদ এবং ইতালির আইন অনুযায়ী সম্ভাব্য জলদস্যু হানা ঠেকাতে `এনরিকে লেক্সে` জাহাজে সশস্ত্র রক্ষী মোতায়েন করা হয়েছিল। তাই তাদের গ্রেফতার করে আন্তর্জাতিক আইন ভেঙেছে ভারত।

ইতালির প্রতিরক্ষামন্ত্রকের দাবি, ভারতীয় মত্‍সজীবীদের বোট খুবই আক্রমণাত্মক ব্যবহার করছিল। গুলি চালানোর আগে নাকি ভারতীয় মত্‍সজীবীদের বার বার শতর্কও করা হয়েছিল। যদিও ইতালির বক্তব্যের বিরোধিতা করেছে ভারত। ফলে রোম ও দিল্লির মধ্যে শুরু হয়েছে চাপানউতর। এই ঘটনা দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কেও প্রভাব ফেলবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞমহল।
গত বৃহস্পতিবার ভোররাতে কেরলের উপকূলে জলদস্যুদের জলযান বলে ভুল করে ভারতীয় মত্‍সজীবীদের একটি নৌকার উপর গুলি চালান `এনরিকা লেক্সে`র রক্ষীরা। গুলিতে আজেশ বিঙ্কি এবং জালাস্টেন নামে ২ মত্‍স্যজীবীর মৃত্যু হয়। অল্পের জন্য প্রাণে বাঁচেন ওই জলযানে থাকা বাকি ৯ জন মত্সজীবী। তাঁদের অভিযোগ, কোনওরকম পূর্ব-সতর্কতা ছাড়াই গুলি চালানো হয় এনরিকে থেকে। রবিবার এই ঘটনায় অভিযুক্ত `এনরিকা লেক্সে`র ২ নিরাপত্তারক্ষীকে গ্রেফতার করে কোচি পুলিস।