গাজায় `হামাস`-এর মূল দফতরে ইজরায়েলের আক্রমণ

গাজায় `হামাস`-এর মূল দফতরে ইজরায়েলের আক্রমণ

গাজায় `হামাস`-এর মূল দফতরে ইজরায়েলের আক্রমণগাজার মুসলিম মৌলবাদী ক্ষমতাসীন দল `হামাস`-এর মূল দফতরে বোমারু বিমান দিয়ে আক্রমণ হানল ইজরায়েল। গাজা আক্রমণে মিশরকেও পাশে পেল ইজরায়েল। অতন্ত্যপক্ষে ৩০ জন প্যালেস্তাইনি এবং ৩ জন ইজরায়েলি নাগরিক ইতিমধ্যেই গত কয়েকদিন ধরে চলা ইজরায়েল-প্যালেস্তাইনের সংঘর্ষের ফলে। শুক্রবার রাতেই ইজরায়েলি মন্ত্রিসভার বৈঠকের পরে পরিষ্কার হয়ে যায় গাজাতে বড়সড় আক্রমণের প্রস্তুতি নিচ্ছে ইজরায়েল। কাল রাতের মধ্যেই সীমান্ত ৭৫ হাজার সেনা মোতায়েন করে ফেলেছিল তারা।

বেশ কিছুদিন ধরেই ইজরায়েল আর প্যালেস্তাইনের মধ্যে আবার করে বৃহত্তর সংঘর্ষের পটভূমি তৈরি হচ্ছিল। কিছুদিন আগে প্যালেস্তাইন থেকে জেরুজালেমের উদ্দেশ্যে রকেট ছাড়া হয়। ইজরায়েলের বাণিজ্যিক রাজধানী তেল আভিভও গতকাল পর্যন্ত প্যালেস্তাইনি রকেটে আক্রান্ত হয়েছে। হামাসের পক্ষ থেকে আগেই এই সমস্ত আক্রমণের দায় স্বীকার করে নেওয়া হয়েছিল। প্রত্তুতরে বৃহস্পতিবার থেকেই আকাশ পথে গাজাতে আক্রমণ হানে ইজরায়েল। আক্রমণে মারা যান হামাস প্রধান। এরপর থেকে গাজা থেকে রকেট আক্রমণের সংখ্যা বৃদ্ধি পায়। ইজরায়েলের সেনা সূত্র থেকে প্রাপ্ত খবর অনু্যায়ী এখনও পর্যন্ত গাজা থেকে জেরুজালেম আর তেল আভিভকে লক্ষ্য করে ৯৯ টি রকেট ছোড়া হয়েছে।

শুক্রবার রাতেই ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানয়াহু মোটামুটি গাজা আক্রমণের নীল নকশা এঁকে ফেলেন। মিশরের তরফ থেকেও সামরিক সাজায্যের আশ্বাস পান তিনি। এদিকে মার্কিনি প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাও জানিয়েছেন ``আত্মরক্ষার্থে ইজরায়েলের গাজা আক্রমণের পাশেই আমেরিকা রয়েছে।``



First Published: Saturday, November 17, 2012, 12:55


comments powered by Disqus