``আমি একজনকে খুন করেছি``

Last Updated: Monday, September 9, 2013 - 18:56

ইন্টারনেটে স্বীকারোক্তি এখন নয়া ট্রেন্ড। কিন্তু এই ওনলাইন কনফেশনকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে গেলেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাথু কর্ডেল। সপ্তাহ খানেক আগে একটি ভিডিওতে নিজের স্বীকারোক্তি বন্দী করে ইউ টিউবে ছেড়েছেন কর্ডেল। আর ছাড়ার সঙ্গে সঙ্গেই এই কয়েকদিনে কর্ডেলের স্বীকারোক্তি ইন্টারনেটের দুনিয়ায় ভাইরালের রূপ নিয়েছে। ভিডিও স্বীকারোক্তি নতুন কিছু নয়। কিন্তু কার্ডেলের স্বীকারোক্তি একটু অন্য ধরনের। কার্ডেল এই ভিডিওতে স্বীকার করেছেন তিনি মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালাতে গিয়ে তিনি এক ব্যক্তিকে গাড়ি চাপা দিয়ে মেরে ফেলেছেন।
``আমি একজন কে খুন করেছি।`` কর্ডেলের ভিডিওর শিরোনাম এটাই। যদিও কর্ডেলের পরিচয় সুরক্ষিত রাখতে ভিডিওটির প্রথমভাগে ডিজিটালি তাঁর গলার আওইয়াজ ভিডিওটিতে কিছুটা পরিবর্তিত করা হয়েছে। তার ছবিও আবছা করে দেওয়া হয়েছে ভিডিওটিতে।
ভিডিওটিতে কর্ডেল জানিয়েছেন ``ঘটনার দিন আমি আমার ট্রাক নিয়ে বন্ধুদের সঙ্গে বেরিয়ে ছিলাম। রাস্তায় আমরা প্রচুর মদ খাই। নেশাচ্ছন্ন অবস্থায় আমার চোখের সামনে সব কিছু আবছা হয়ে আসছিল। চাই ছিলাম বাড়ি ফিরে আসতে। কিন্তু নেশার ঘোরে রাস্তা হারিয়ে ফেলি। হাইওয়েতে কন্ট্রোল হারিয়ে সরাসরি ধাক্কা সামনের দিক থেকে আসা একটি গাড়িকে। আমি একজন মানুষকে হত্যা করে ফেলি।``
কর্ডেল এর সঙ্গেই স্বীকার করেছেন ডিপ্রেশন কাটাতে মাঝে মাঝেই তিনি মাত্রাতিরিক্ত মদ খেয়ে ফেলেন। ``মদ খাওয়ার পর আমি যে ব্যক্তিতে পরিণত হই তাকে আমি ঘৃণা করি। এর জন্য আগেও আমার বহু সম্পর্ক নষ্ট হয়েছে। মদ্যপ অবস্থায় আমি ঝগড়াও শুরু করেদি।`` স্বীকার করেছেন কর্ডেল।
কর্ডেল জানিয়েছেন এই স্বীকারোক্তির মাধ্যমে তিনি সাধারণ মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে চান। মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালালে তার ফলাফল যে কতটা ভয়াবহ হতে পারে নিজেকে তার উদাহরণ হিসাবে তুলে ধরতে চান। ভিডিওটির দ্বিতীয়ভাগে নিজের পরিচয় দিয়ে জন সমক্ষে এনেছেন কর্ডেল। নিজেকে লুকিয়ে রেখে মৃত ব্যক্তির অসম্মান করতে চাননি কার্ডেল। তাই তাঁর আইনজীবী বারণ সত্ত্বেও তিনি নিজের পরিচয় সবাইকে জানিয়েছেন।
ভিডিওটিতেই কর্ডেল জানিয়েছেন নিজের কৃতকর্মের জন্য তিনি অনুতপ্ত। আইন তাঁকে যা শাস্তি দেবে তিনি মাথা পেতে নেবেন। তিনি শুধু চান মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালিয়ে তিনি যে অপরাধ করেছেন ভবিষ্যতে কেউ যেন তার পুনরাবৃত্তি না ঘটায়।



First Published: Monday, September 9, 2013 - 18:56
comments powered by Disqus