উড়ো ফোনে সাড়া দিয়ে আত্মঘাতী কেটের নার্স

Last Updated: Saturday, December 8, 2012 - 11:22

হাসপাতালের এক উড়ো টেলিফোন কলকে সত্যি ভেবে `হাই প্রোফাইল` রোগী সম্পর্কে তথ্য দিয়েছিলেন এক নার্স। সাড়া পৃথিবীতে শোরগোল পরে যায় এর পর। কারণ রোগী স্বয়ং ডাচেস অফ কেমব্রিজ, কেট মিডিলটন। আশ্চর্যজনক ভাবে গত রাতে হাসপাতাল থেকে অনতিদূরে দেহ মিলল সেই নার্সের।
প্রভাতী অসুস্থতার কারণে লন্ডনের কিং এডওয়ার্ড সেভেন হাসপাতালে ভর্তি হন গর্ভবতী কেট। বুধবার ভোর সাড়ে ৫টায় প্রিন্স চার্লস এবং স্বয়ং রানির নাম করে একটি ফোন আসে হাসপাতালে। ফোন ধরেন ৪৬ বছরের ভারতীয় বংশদ্ভূত নার্স জাসিনথা সালদানহা। অবলীলায় জানিয়ে দেন অসুস্থ কেটের হালহকিকৎ। তারপরেই জানা যায় ওটি আসলে উড়ো টেলিফোন। অস্ট্রেলিয়ার দুই রেডিও জকি মেল গ্রেগ মাইকেল ক্রিশ্চান সিডনি থেকে ওই কলটি করেন। বলাই বাহুল্য, রাজবাড়ির অন্দরমহল নিয়ে এহেন রসিকতা মোটেই রসবোধে গৃহীত হয়নি ব্রিটেনে। রাজবাড়ির তরফ থেকে কোনও দোষারোপ না করা হলেও সমালচনার ঝড় ওঠে দেশ জুড়ে। দায়ী করা হয় হাসপাতালের নিরাপত্তা ব্যবস্থাকেও। সূত্রে খবর, মানসিক ভাবে এই চাপে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ছিলেন জাসিনথা। এর পরে শুক্রবার তাঁর দেহ মেলে। প্রাথমিক ভাবে আত্মহত্যাই মনে করছে স্কটল্যান্ড ইয়ার্ড।
সেন্ট জেমস-এর রাজবাড়ির তরফ থেকে শোক প্রকাশ করে বলা হয়েছে, "জাসিনথা সালদানহার মৃত্যুতে ডিউক এবং ডাচেস অফ কেমব্রিজ গভীর শোকাহত। কিং এডওয়ার্ড সেভেন হাসপাতালে থাকাকালীন প্রত্যেকের কাছ থেকে সুন্দর সেবা পেয়েছেন রয়্যাল হাইনেস।" মৃতের পরিবাররের প্রতিও সমবেদনা জানান হয়েছে।



First Published: Saturday, December 8, 2012 - 11:22


comments powered by Disqus