মার্কিন সাংবাদিকের পর কুর্দিশ যোদ্ধা, ফের একজনের মাথা কেটে ভিডিও প্রকাশ করল ইরাকের ইসলামিক স্টেট জঙ্গিরা

Last Updated: Friday, August 29, 2014 - 16:15
মার্কিন সাংবাদিকের পর কুর্দিশ যোদ্ধা, ফের একজনের মাথা কেটে ভিডিও প্রকাশ করল ইরাকের ইসলামিক স্টেট জঙ্গিরা

বাগদাদ: ফের আইসিস জঙ্গি গোষ্ঠী অনলাইনে ভয়াবহ একটি ভিডিও পোস্ট করল। এবার তাদের শিকার এক ইরাকি কুর্দিশ যোদ্ধা। মার্কিনি সাংবাদিকের মতই তাঁরও মাথা কেটে ভিডিও প্রকাশ করল আইসিস।

উত্তর ইরাকে কুর্দিশ জনগোষ্ঠীকে সাহায্য করতে জঙ্গিদের উপর লাগাতার বিমান  চালাচ্ছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। কুর্দিশরা যেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সমস্ত রকম সম্পর্কের ইতি টানে। এই ভিডিওর মাধ্যমে এমনই হুমকি দিল এই ইসলামিক জঙ্গি গোষ্ঠী।

"A message in blood to the leaders of the American-Kurdish alliance' নামের ভিডিওটিতে ইসলামিক স্টেটের পতাকাকে ঘিরে কমলা আলখাল্লা পরিহিত ১৫ জন জঙ্গিকে দেখা যাচ্ছে। তাদের মধ্যে তিনজন কুর্দের আঞ্চলিক প্রেসিডেন্ট মাসুদ বারজানিকে রীতিমত হুমকির সুরে জানিয়েছে "" কুর্দিশ সরকার এখনই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করুক। উত্তর ইরাকে সমস্তধরণের মিলিটারি হস্তক্ষেপ বন্ধ করা হক।''

এরপরেই ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে একটি মসজিদের সামনে কালো পোশাক পরিহিত, মুখ ঢাকা তিন ব্যক্তিকে। তাদের সামনে কমলা পোশাক পরে হাঁটু মুড়ে বসে আছেন এক ব্যক্তি। দাঁড়িয়ে থাকা  তিনজন এরপর নৃশংস ভাবে মাথা কেটে নেয় বসে থাকা ব্যক্তির।

কিছুদিন আগেই এক মার্কিন সাংবাদিকের মাথ কেটে ভিডিও প্রকাশ করে  ইরাকের ইসলামিক স্টেট জঙ্গিরা। জেমস ফোলে নামের ওই মার্কিন সাংবাদিকের মাথাকাট অবস্থার ভিডিওর নাম দেওয়া হয়ছিল "অ্যা মেসেজ টু আমেরিকা" (আমেরিকাকে বার্তা)। বারাক ওবামাকে উদ্দেশ্য করে বলা হয়েছিল , এটা হল ইরাকে পা  দেওয়ার ফল। ২০১২ সালের নভেম্বরে উত্তর সিরিয়ায় থেকে নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিলেন সাংবাদিক ফোলে।
 
 গ্লোবাল পোস্ট নামের এক অনলাইন পত্রিকায় ফ্রিল্যান্স সাংবাদিক হিসাবে কাজ করতেন। গত পাঁচ বছর মধ্য এশিয়ায় কাজ করেছেন। লিবিয়ায় তাঁকে একবার অপহরণ করার পর ছেড়ে দেওয়া হয়েছিল। ভিডিওটি জাল কিনা তা খতিয়ে দেখার পরই এই বিষয়ে বিবৃতি দেবে মার্কিন সরকার।

 

 

AFP

First Published: Friday, August 29, 2014 - 16:11


comments powered by Disqus