আট মাসের যুদ্ধ শেষ, `স্বাধীন` হল লিবিয়া

Last Updated: Sunday, October 23, 2011 - 23:45

ফেব্রুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর। শেষ হল আট মাসের যুদ্ধ। রবিবার, বেংঘাজির ফ্রিডম স্ক্যোয়ারে গদ্দাফি বাহিনীর সঙ্গে যুদ্ধাবসানের কথা আনুষ্ঠানিক ভাবে ঘোষণা করলেন ন্যাশনাল ট্রানজিশনাল কাউন্সিলের ডেপুটি লিডার আবদেল হাফিজ ঘোগা। ঘোষিত হল লিবিয়ার স্বাধীনতা। লাখো মানুষের ভিড়ে লাল-কালো-সবুজ পতাকায় ঢেকে গেল ফ্রিডম স্ক্যোয়ার। উপস্থিত ছিলেন, লিবিয়ার ন্যাশনাল ট্রানজিশনাল কাউন্সিলের চেয়ারম্যান মুস্তাফা আবদুল জলিল। আট মাসের যুদ্ধে পাশে থাকার জন্য কাউন্সিলের সেনাবাহিনী থেকে শুরু করে সাংবাদিক, সবাইকে ধন্যবাদ দেন তিনি। জানান, ইসলামিক আইনে গঠিত হবে নতুন লিবিয়া। সিরিয়া ও ইয়েমেনে সরকার বিরোধী আন্দোলনকারীদেরও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তিনি। বেংঘাজি থেকেই গদ্দাফি বিরোধী আন্দোলনের ঢেউ ছড়িয়ে পড়ায় স্বাধীনতার ঘোষণার জন্য এই শহরটিকেই বেছে নিয়েছিলেন অন্তর্বর্তী প্রশাসনের কর্তারা। লিবিয়ার স্বাধীনতার ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়েছে ন্যাটো। সবাইকে নিয়ে সহমতের ভিত্তিতে, মানবাধিকার ও আইনের শাসনকে সম্মান জানিয়ে, নতুন দেশ গঠনের ওপর জোর দিয়েছেন ন্যাটো প্রধান অ্যান্ডার্স ফগ রাসমুসেন। আগামি দিনে লিবিয়ার নাগরিকদের ওপর কোনও বিপদ এলে ন্যাটো সাহায্য করবে বলেও জানান তিনি। এ সবের মধ্যেই শনিবার পাওয়া গিয়েছে গদ্দাফির মৃতদেহের অটোপসি রিপোর্ট। মাথায় গুলি লেগে তাঁর মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন লিবিয়ার চিফ প্যাথলজিস্ট ওথামান অল-জিনতানি। তবে, মৃত্যুর ঠিক আগে গদ্দাফি কী ধরনের অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হয়েছিলেন তা নিয়ে মুখ খোলেননি তিনি। অটোপসি
রিপোর্টটি লিবিয়ার অ্যাটর্নি জেনারেলের হাতে তুলে দেওয়া হবে। এ দিনই, গদ্দাফি জমানার এক উচ্চ-পদস্থ আধিকারিক তথা প্রাক্তন মন্ত্রী আহমেদ ইব্রাহিমকে গ্রেফতার করে মিসরাতায় নিয়ে আসা হয়েছে।



First Published: Monday, October 24, 2011 - 13:31


comments powered by Disqus