নরেন্দ্র মোদীর ব্রিটেনে প্রবেশ নিষিদ্ধ হতে পারে

বছর ছয়েক আগেই গোধরা পরবর্তী দাঙ্গার ঘটনায় সংখ্যালঘু নিপীড়নে মদতদানের অভিযোগে তাঁকে ভিসা দিতে অস্বীকার করেছিল আমেরিকা। গত সপ্তাহে সেই সিদ্ধান্ত বহাল রাখার কথা ঘোষণা করেছে বারাক ওবামা সরকার। এবার রানি এলিজাবেথের মুলুকেও প্রবেশাধিকার হারাতে পারেন নরেন্দ্রভাই দামোদরদাস মোদী।

Updated: Apr 30, 2012, 02:11 PM IST

বছর ছয়েক আগেই গোধরা পরবর্তী দাঙ্গার ঘটনায় সংখ্যালঘু নিপীড়নে মদতদানের অভিযোগে তাঁকে ভিসা দিতে অস্বীকার করেছিল আমেরিকা। গত সপ্তাহে সেই সিদ্ধান্ত বহাল রাখার কথা ঘোষণা করেছে বারাক ওবামা সরকার। এবার রানি এলিজাবেথের মুলুকেও প্রবেশাধিকার হারাতে পারেন নরেন্দ্রভাই দামোদরদাস মোদী। মানবাধিকার লঙ্ঘনের দায়ে অভিযুক্ত অ-ইউরোপীয় নাগরিকদের দেশে ঢুকতে না দেওয়ার একটি আইন রয়েছে ব্রিটেনে। সেই আইনকে হাতিয়ার করেই গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রীর ব্রিটেনে প্রবেশ রুখতে সক্রিয় হয়েছে সে দেশের কয়েকটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।
রবিবার থেকেই নরেন্দ্র মোদীকে ভিসা না দেওয়ার দাবি জানিয়ে টেমস নদীর তীরে জোরদার প্রচারাভিযান শুরু করেছে মানবাধিকার সংগঠন, 'সাউথ এশিয়া সলিডারিটি গ্রুপ'। সংস্থার কর্ণধার অমরিত উইলসনের অভিযোগ, ২০০২ সালের গোধরা পরবর্তী গুজরাত দাঙ্গায় ১,২০০ মানুষের মৃত্যু হয়েছিল। বিভিন্ন নিরপেক্ষ সংস্থার তদন্তে মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে সংখ্যালঘু গণহত্যায় মদতের অভিযোগ উঠে এসেছে। ব্রিটিশ সরকারের আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংক্রান্ত রিপোর্টেও তার সমর্থন মিলেছে। তাই তাঁরা চান নতুন ভাবে আইনি পর্যালোচনা করে নরেন্দ্র মোদীর ব্রিটেনে প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হোক।