নরওয়ে হত্যাকাণ্ডের কাণ্ডারিকে ২১ বছরের কারাদণ্ড দিল আদালত

Last Updated: Friday, August 24, 2012 - 18:52

নরওয়ে হত্যাকাণ্ডে প্রধান অভিযুক্ত আন্দের্স বেহ্‌রিং ব্রেভিককে ২১ বছরের কারাদণ্ডের নির্দেশ দিল অসলোর একটি আদালত। মস্তিষ্ক বিকৃতি সংক্রান্ত ব্রেভিকের আবেদনও খারিজ করে দিয়েছে আদালত।
গত বছরের ২২ জুলাই অসলোয় একটি বিস্ফোরণ এবং উটোয়া দ্বীপে গুলিচালনার ঘটনায় ৭৭ জনের মৃত্যু হয়েছিল। ঘটনার পরই ধরা পড়ে মূল অভিযুক্ত আন্দের্স ব্রেভিক। অসলো আদালতের পাঁচ বিচারপতি আজ তাঁর কারাদণ্ডের নির্দেশ দেন।
নরওয়ের দণ্ডবিধিতে মৃত্যুদণ্ড এবং যাবজ্জীবন কারাবাসের কোনও স্থান নেই। যদিও, সমাজের পক্ষে বিপজ্জনক অপরাধীদের অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্দি রাখতে পারে এই দেশ।
তাঁদের মতে, এই রায় অবশ্যম্ভাবী ছিল। এই রায়ের পর কিছুটা হলেও আশ্বস্ত বোধ করছেন নিহতদের পরিবারের লোকজন। তাঁদের মতে, অতি দক্ষিণপন্থী ব্রেভিক সমাজের পক্ষে বিপজ্জনক হয়ে উঠেছিলেন। 
ইউরোপ থেকে মুসলীম সম্প্রদায়ভুক্তদের নিকেশ করার লক্ষ্যে গত বছর ২২ জুলাই ওসলোর একটি সরকারি দফতরের সামনে একটি গাড়ি বোমা বিস্ফোরণ ঘটায় ব্রেভিক। আটজনের মৃত্যু হয় সেই ঘটনায়। এর পর উটোয়া দ্বীপে ক্ষমতায় আসীন লেবর পার্টি আয়োজিত কম বয়সীদের একটি সামার ক্যাম্পে আচমকা হানা দিয়ে ৬৯ জনকে খুন করে সে।
মামলা চলাকালীন ব্রেভিক বলে তার রাজনৈতিক আদর্শকে অবজ্ঞা করার জন্যই তাকে মানসিক ভারসাম্যহীন বলা হচ্ছে। সে এও বলে তাকে মনোরোগের হাসপাতালে পাঠান হলে সেটাই তার জীবনের সব থেকে খারাপ ঘটনা হবে। তার পক্ষের আইনজীবী জানান ব্রেভিক তার আদর্শের ইস্তেহারে ১৫০০ পাতার দ্বিতীয় কিস্তি লেখাতে মন দিয়েছেন। ওসলো বিস্ফোরণ এবং উটোয়া দ্বীপের হত্যাকাণ্ডের আগেই প্রথম কিস্তি ইন্টারনেটের মাধ্যমে প্রকাশ করে ব্রেভিক।



First Published: Friday, August 24, 2012 - 18:52


comments powered by Disqus