পাক ভোট ১১ মে, দাঁড়াবেন মুশারফ!

আগামী ১১ মে পাকিস্তানে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে বহু প্রতীক্ষিত সাধারণ নির্বাচন। বুধবার নির্বাচনের দিন ঘোষণা করেন প্রেসিডেন্ট আসিফা আলি জারদারি। সরকারের মুখপাত্র ফারহাতুল্লা বাবর জানিয়েছেন, সরকার ও নির্বাচন কমিশনের পরামর্শক্রমেই প্রেসিডেন্ট জারদারি ওই দিন ঘোষণা করেছেন। সূত্রের খবর, দেশের ফিরে এই সাধারণ নির্বাচনে দাঁড়াতে পারেন পারভেজ মুশারফ। ভোটের দিন ঘোষণার পরই ইমরান খান বলেছেন, তাঁর দলই ক্ষমতায় আসবে।

Updated: Mar 20, 2013, 09:26 PM IST

আগামী ১১ মে পাকিস্তানে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে বহু প্রতীক্ষিত সাধারণ নির্বাচন। বুধবার নির্বাচনের দিন ঘোষণা করেন প্রেসিডেন্ট আসিফা আলি জারদারি। সরকারের মুখপাত্র ফারহাতুল্লা বাবর জানিয়েছেন, সরকার ও নির্বাচন কমিশনের পরামর্শক্রমেই প্রেসিডেন্ট জারদারি ওই দিন ঘোষণা করেছেন। সূত্রের খবর, দেশের ফিরে এই সাধারণ নির্বাচনে দাঁড়াতে পারেন পারভেজ মুশারফ। ভোটের দিন ঘোষণার পরই ইমরান খান বলেছেন, তাঁর দলই ক্ষমতায় আসবে।
এই প্রথমবার পাকিস্তানে একটি নির্বাচিত সরকারের হাত থেকে ক্ষমতা হস্তান্তরিত হতে পারে আরেকটি নির্বাচিত সরকারের হাতে। সেইসঙ্গে এই প্রথমবার হিংসা বিধ্বস্ত পাকিস্তানে কোনও নির্বাচিত সরকার পূর্ণ মেয়াদ কাটাতে পারল শাসনক্ষমতায়।
ওই একই দিনে পাকিস্তানের চারটি প্রদেশের বিধানসভা নির্বাচনের জন্যও ভোট হবে বলে খবর। এবারের ভোটে লড়ার জন্য আগ্রহী হয়েছেন এবং দেশে ফেরার চেষ্টা চালাচ্ছেন প্রাক্তন পাক প্রেসিডেন্ট ও সেনাশাসক পারভেজ মুশারফ। ভোটে লড়তে পারেন পাকিস্তানের বেশ কয়েকজন মৌলবাদী নেতাও।