মহিলার পা ধুয়ে চুমু, বিতর্কে নতুন পোপ

চার্চকে অবমাননা করে দুই মহিলার পা ধুয়ে দিয়ে পায়ে চুমু খেলেন পোপ ফ্রান্সিস। বৃহস্পতিবার পুরুষদের হোলি থার্সডে আচার পালনের সময় পোপ চার্চের নিয়ম-বিরুদ্ধ এই আচরণ করেন। এর আগে কোনও পোপ এই ধরনের আচরণ করেননি। পোপের আচরণে চরমপন্থীদের মধ্যে বিতর্ক ও নিন্দার ঝড় উঠলেও তাঁকে স্বাগত জানিয়েছেন নরমপন্থীরা।

Updated: Mar 29, 2013, 12:27 PM IST

চার্চকে অবমাননা করে দুই মহিলার পা ধুয়ে দিয়ে পায়ে চুমু খেলেন পোপ ফ্রান্সিস। বৃহস্পতিবার পুরুষদের হোলি থার্সডে আচার পালনের সময় পোপ চার্চের নিয়ম-বিরুদ্ধ এই আচরণ করেন। এর আগে কোনও পোপ এই ধরনের আচরণ করেননি। পোপের আচরণে চরমপন্থীদের মধ্যে বিতর্ক ও নিন্দার ঝড় উঠলেও তাঁকে স্বাগত জানিয়েছেন নরমপন্থীরা।
নিজের আচরণের ব্যাখ্যা দিয়ে বিরোধী মুসলিম ও চরমপন্থী খ্রীষ্টানদের উদ্দেশে পোপ বলেছেন, ক্রুশবিদ্ধ হওয়ার দিন সন্ধেবেলা যীশু খ্রীষ্ট তাঁর শিষ্যদের পা ধুয়ে দিয়েছিলেন। রোমের ক্যাসাল ডেল মারমোতে ১৪ থেকে ২১ বছর বয়সীদের উদ্দেশে পোপ বলেন, "এটা প্রতীকী। পা ধুয়ে দেওয়া মানে আমি তোমার সেবায় নিমজ্জিত। একে অপরকে সাহায্য কর। যীশু আমাদের এটাই শিখিয়েছেন। আমি সেটাই করেছি ও মন থেকে করেছি। কারণ এটা আমার কর্তব্য। একজন প্রিস্ট বা বিশপ হিসেবে আমার নিজের কর্তব্য পালন করা উচিত।"
ভ্যাটিকানে প্রকাশিত একটি ভিডিও ফুটেজ অনুযায়ী দেখা গিয়েছে ৭৬ বছর বয়সী ফ্রান্সিস পাথরের মেঝের ওপর হাঁটু মুড়ে বসে বহু মানুষের পা ধুয়ে দিচ্ছেন। সাদা চামড়া, কালো চামড়া, পুরুষ, মহিলা নির্বিশেষে পা ধুয়ে, তোয়ালে দিয়ে মুছিয়ে পায়ে চুমু খাচ্ছেন পোপ।