ফেসবুক জানাল নতুন করে প্রেমে পড়েছিলেন সুস্মিতা

Last Updated: Sunday, September 8, 2013 - 17:38

সুস্মিতা হত্যাকাণ্ডে নয়া মোড়। ফেসবুকের মাধ্যমে প্রকাশ্যে এল সুস্মিতার নতুন সম্পর্কের কথা। সুস্মিতার এক বান্ধবী শালিনী নস্করের সঙ্গে করা চ্যাট রেকর্ড থেকে জানা গেল, দিল্লির এক আর্কিটেক্ট দীপক কুমারের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন সুস্মিতা। বেশ কিছুদিন নিজের ভাইয়ের স্ত্রীর সম্পর্ক তৈরি হয়েছিল সুস্মিতার স্বামী জানবাজ খানের। তার জেরেই পারিবারিক ও মানসিক অশান্তির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছিলেন সুস্মিতা। ফেসবুকেই আলাপ হয় দীপক কুমারের সঙ্গে।
২৪ ঘণ্টার কাছে ফোনে সেই কথা স্বীকার করে নিয়েছেন দীপক কুমার। জানালেন, "সুস্মিতার সঙ্গে আমার কোনওদিন দেখা হয়নি। ফেসবুকের মাধ্যমেই আমাদের একটা সম্পর্ক তৈরি হয়। দেড় মাসের সম্পর্ক ছিল আমাদের। দুজনেই দুজনকে খুব ভালবাসতাম আমরা। ও বাকি জীবনটা আমার সঙ্গেই কাটাতে চেয়েছিল। মন্দিরে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম আমরা। প্রতিদিন রাতে আমাদের ফেসবুকে কথা হত। আমি ওর ওই দেশে থাকা নিয়ে চিন্তিত ছিলাম। কিন্তু ও বলত আমার ভালবাসা ওর সঙ্গে রয়েছে।"
সুস্মিতা জানিয়েছিলেন স্বামী ও পরিবারের সঙ্গে থাকতেই তিনি আফগানিস্তানে ফিরেছিলেন। যদিও দীপকের কথায় জানা গেছে সম্পূর্ণ অন্য কথা। দীপক জানান, "জানবাজের সঙ্গে ও থাকত না। আমাকে বলেছিল এক ভারতীয় পরিচারিকা ওর সঙ্গে থাকে। ৫ তারিখ সুস্মিতার কাবুলে আসার কথা ছিল। সেখান থেকে ৬ তারিখে দিল্লি পৌঁছে ভোপাল। ভোপালেই হাসপাতাল করতে চেয়েছিল সুস্মিতা। কিন্তু আসার আগের দিনই ওকে খুন হতে হল।" সুস্মিতার মৃত্যুর পিছনে জানবাজ বা অন্য কোনও পারিবারিক শত্রুতাই রয়েছে বলে মনে করছেন দীপক।
"আমি খুব খুশি যে আমি তোমার সঙ্গে দেখা করতে আসছি। আমার আত্মার সঙ্গে দেখা হবে আমার। আমি এতই খুশি যে ভয় হচ্ছে দেখা হওয়ার আগেই আমার হৃত্স্পন্দন থেমে না যায়..."এই কথাগুলোই মৃত্যুর আগের মুহূর্তে দীপককে বলেছিলেন সুস্মিতা। শেষপর্যন্ত তাঁর আশঙ্কাই সত্যি হল। তবে তালিবানি রোষ না ব্যক্তিগত আক্রোশ? কী কারণে খুন হতে হল সুস্মিতাকে?



First Published: Monday, September 9, 2013 - 10:20


comments powered by Disqus