ফরেন্সিক রিপোর্টে চাঞ্চল্য প্যালেস্তাইনে, তেজষ্ক্রিয় বিষক্রিয়াতেই মৃত্যু আরাফতের

Last Updated: Thursday, November 7, 2013 - 16:51

মাত্রাতিরিক্ত তেজষ্ক্রিয় পোলোনিয়ামের বিষক্রিয়াতেই মৃত্যু হয়েছে প্যালেস্তাইনের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট ইয়াসের আরাফতের। আরাফতের দশম মৃত্যুবার্ষিকীর ঠিক আগে সুইডেনের এই ফরেন্সিক রিপোর্ট ঘিরে শুরু হয়েছে চাপানউতোর। নতুন করে আন্তর্জাতিক পর্যায়ের কমিটি গড়ে তদন্তের দাবি জানিয়েছে প্রাক্তন প্রেসিডেন্টের দল।
১০ বছর আগেই সন্দেহ দানা বেধেছিল।  তার দশম মৃত্যুবার্ষিকীর দোড়গোড়ায় এসে ফের সেই সন্দেহ ফের মাথাচাড়া দিল। আরাফতের মৃত্যুর নেপথ্যে কি ইজরায়েলের হাত রয়েছে? এই বিতর্কই মাথাচাড়া দিয়েছে সুইডেনের ফরেনসিক বিশেষজ্ঞদের রিপোর্টে। রিপোর্ট বলছে আরাফতের দেহে মাত্রাতিরিক্ত পোলোনিয়াম ২১০ এবং সীসা ২১০ ছিল। এর থেকে বিষক্রিয়া ঘটে। বিষ মেশানোর কাজে আরাফতের ঘনিষ্ঠ কোনও ব্যক্তি যুক্ত ছিল বলেও অনুমান। বিশেষজ্ঞরা বলছেন হয় চা নয় কফি বা জলের মধ্যে মেশানো হয়েছিল তেজষ্ক্রিয় পদার্থ।
 
এই রিপোর্ট সামনে আসার পরেই নতুন করে তদন্তের দাবি জানিয়েছে ইয়াসের আরাফতের দল প্যালেস্তাইন লিবারেশন অর্গানাইজেশন। ইয়াসের আরাফতের মৃত্যুতে ইজরায়েল সরকারের কোনও ভূমিকা নেই বলে দাবি করেছেন বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র ইয়াগল পালমোর। বয়সের কারণে এবং সুষ্ঠু জীবনযাপন না করার ফলেই প্যালেস্তাইনের প্রাক্তন প্রেসিডেন্টের মৃত্যু হয়েছিল বলেই দাবি করেছেন ইয়াগল পালমোর।
২০০৪ সালে মিলিটারি হাসপাতালে আরাফতের মৃত্যুকে স্বাভাবিক বলে মেনে নেয়নি প্যালেস্তাইন সরকার ও তার পরিবার। মৃত্যুর পরেই অভিযোগ উঠেছিল বিষপ্রয়োগ করে খুন করা হয়েছে আরাফতকে। তবে তাঁর  স্ত্রী সুহার অনুরোধে আরাফতের দেহের ময়নাতদন্ত হয়নি। গত নভেম্বরে  দেহাবশেষ কবর থেকে তুলে রাসায়নিক পরীক্ষা শুরু হয়। বিশেষজ্ঞদের এই রিপোর্টের ফলে প্যালেস্তানীয়দের এতদিনের দাবি সত্য প্রমাণিত হল বলে মনে করছেন অনেকেই। আরাফত ইস্যুতে প্যালেস্তাইনের সঙ্গে ইজরায়েলের কূটনৈতিক স্তরে নতুন করে চাপানউতোর সম্ভাবনাও উড়িয়ে দিচ্ছেন না রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা।



First Published: Thursday, November 7, 2013 - 16:51


comments powered by Disqus