পুলিস ফাঁড়িতেই চলছে কচিকাচাদের নিয়ে প্রাথমিক স্কুল! পুলিস ফাঁড়িতেই চলছে কচিকাচাদের নিয়ে প্রাথমিক স্কুল!

পুলিস ফাঁড়িতেই চলছে কচিকাচাদের নিয়ে প্রাথমিক স্কুল। ক্লাস নিচ্ছেন পুলিসকর্মীরাই। এই বিরল দৃশ্য দেখা গেছে শিলিগুড়ির প্রত্যন্ত গ্রাম মিলনপল্লীর পুলিস ফাঁড়িতে। এলাকায় কোনও স্কুল না থাকায় শিশুদের পড়াশোনার প্রাথমিক দায়িত্ব সামলাচ্ছেন  উর্দিধারীরাই। শিলিগুড়ি শহর থেকে ছত্রিশ কিলোমিটার দূরে তিস্তা নদীর ধারে প্রত্যন্ত গ্রাম মিলনপল্লী। পাশেই রয়েছে আরও তিনটি গ্রাম গাজলডোবা, দুধিয়া এবং চাকীমারী। তিনটি গ্রামে প্রায় দশ হাজার মানুষের বসবাস । গ্রামের দিন আনা দিন খাওয়া বেশিরভাগ মানুষের জীবিকা কৃষিকাজ।  গ্রামে ছিলনা কোনও স্কুল। শিশুদের ভবিষ্যত নিয়ে তেমন কেউ মাথাও ঘামাননি।  দুহাজার তেরো সালে মিলনপল্লী পুলিস ফাঁড়িতেই শুরু হয় নবদিশা পাঠ প্রাথমিক বিদ্যালয়। বাড়ি বাড়ি গিয়ে শিশুদের স্কুলে পাঠানোর আর্জি জানান পুলিসকর্মীরাই।

পাচারকারী সন্দেহে এক যুবককে বেধড়ক পেটাল এলাকার লোকজন পাচারকারী সন্দেহে এক যুবককে বেধড়ক পেটাল এলাকার লোকজন

পাচারকারী সন্দেহে এক যুবককে বেধড়ক পেটাল এলাকার লোকজন। দেবাশিস চৌধুরী নামের ওই ব্যক্তির বাড়ি ইসলামপুরে। জানা যায়, ওই এলাকারই এক তরুণীকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে নিয়ে যায় দেবাশিস চৌধুরী। তরুণী এখন মুম্বইয়ে রয়েছেন। মুম্বই থেকে ফোন করে ওই তরুণী বাড়িতে গোটা ঘটনা জানান। মুম্বই থেকে তাঁকে উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়ার কথাও বলেন তরুণী। ইতিমধ্যেই ওই যুবক গ্রামের আরও এক তরুণীকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দেয়। গোটা ঘটনা জানাজানি হতেই, এলাকায় শোরগোল পড়ে যায়। বর্তমানে যে তরুণীকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে দেবাশিস, তার মাধ্যমে ডেকে পাঠানো হয়। দেবাশিসকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে এলাকার লোকজন। শুরু হয় বেধড়ক মারধর। ঘণ্টাখানেক পর বহরমপুর থানার পুলিস এসে যুবককে গ্রেফতার করে।

সোনারপুরের হরহরিতলায় বন্ধ ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হল প্রৌঢ়ার দেহ সোনারপুরের হরহরিতলায় বন্ধ ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হল প্রৌঢ়ার দেহ

সোনারপুরের হরহরিতলায় বন্ধ ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হল প্রৌঢ়ার দেহ। মৃতা দীপান্বিতা মুখোপাধ্যায় নেতাজিনগরের বাসিন্দা। গলায় ফাঁস লাগিয়ে শ্বাসরোধ করেই খুন করা হয়েছে বলে প্রাথমিক অনুমান পুলিসের। বৃহস্পতিবার থেকেই নিখোঁজ ছিলেন বছর তেষট্টির ওই মহিলা। বৃহস্পতিবার সকালে অসুস্থ আত্মীয়াকে দেখতে সল্টলেকে যাচ্ছেন বলে বাড়ি থেকে বেরোন দীপান্বিতা মুখোপাধ্যায়। রাতেও বাড়ি না ফেরায় মিসিং ডায়েরি করেন বাড়ির লোক। এরপর শুক্রবার সোনারপুরে ভাইয়ের ফ্ল্যাট থেকে  উদ্ধার হয় ওই মহিলার নিথর দেহ। ভাই কর্মসূত্রে বাইরে থাকায় ফ্ল্যাটের চাবি থাকত মহিলার কাছেই। ফ্ল্যাটের কেয়ারটেকার জানিয়েছেন বৃহস্পতিবার দুপুরে ফ্ল্যাটে আসেন দীপান্বিতা। এরপর আত্মীয় পরিচয় দিয়ে ওই ফ্ল্যাটে আসেন এক ব্যক্তিও। খুনের মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করেছে পুলিস।

অধ্যাপকদের খেয়োখেয়িতে  শেষপর্যন্ত পুলিস ডাকতে হল  উপাচার্যকে অধ্যাপকদের খেয়োখেয়িতে শেষপর্যন্ত পুলিস ডাকতে হল উপাচার্যকে

অধ্যাপকদের খেয়োখেয়িতে  শেষপর্যন্ত পুলিস ডাকতে হল  উপাচার্যকে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষা করতেই সিধো কানহো বিশ্ববিদ্যালয়ে পুলিস এসেছে, মানছেন উপাচার্য। অথচ পরিস্থিতি সামলাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ব্যর্থ সেটা মানতে চাইছেন না। ফলে অধ্যাপকদের দুই গোষ্ঠীর  কোন্দলের প্রসঙ্গও এড়িয়ে গেছেন তিনি। কিন্তু কেন বিশ্ববিদ্যালয়ে পুলিস এল? ঘটনার সূত্রপাত বুধবার। সিধো কানহো বিশ্ববিদ্যালয়ে বিবেকানন্দনগর ক্যাম্পাসে অধ্যাপকদের নিয়ে মিটিং করছিলেন, তৃণমূলপন্থী অধ্যাপক গৌতম মুখোপাধ্যায়। সেইসময় বহিরাগতরা ঢুকে মিটিং ভণ্ডুল করে দেয়। চলে অশ্রাব্য গালিগালাজ।  ছজনের নামে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন গৌতম মুখোপাধ্যায়। ঘটনার নিন্দায় বৃহস্পতিবার প্রশাসনিক ভবনের সামনে বিক্ষোভ দেখায় গৌতম মুখোপাধ্যায়ের অনুগামীরা। উপাচার্যকে ডেপুটেশনও দেন তাঁরা।

 কর্মসূত্রে বাহরিনে গিয়ে খুন হলেন নন্দীগ্রামের এক যুবক কর্মসূত্রে বাহরিনে গিয়ে খুন হলেন নন্দীগ্রামের এক যুবক

কর্মসূত্রে সৌদি আরবের বাহরিনে গিয়ে, খুন হয়ে গেলেন পূর্ব মেদিনীপুরের নন্দীগ্রামের এক যুবক। ঢালাইয়ের কাজ করতে মাস ছয়েক আগে বাহরিনে যান পূর্ব গোপাল চক গ্রামের বাসিন্দা রতন প্রধান। গত দোসরা জানুয়ারি তাঁর বাড়িতে ফোন করে জানানো হয়, ছুরির আঘাতে জখম হয়েছেন রতন। এরপরই কেটে যায় ফোনটি। বারবার যোগাযোগ করার চেষ্টা হলেও, কোনও খবর পায়নি তাঁর পরিবার। এরপরই সাংসদ শিশির অধিকারীর দ্বারস্থ হন তাঁরা। অনেক চেষ্টাচরিত্রের পর জানা যায়, খুন হয়ে গেছেন রতন প্রধান। একমাস পর আজ তাঁর দেহ এসে পৌছয় গ্রামের বাড়িতে। জানা গেছে, সহকর্মী শেখ মুন্নার সঙ্গে ঝামেলার জেরে এই খুন । ডায়মন্ডহারবারের বাসিন্দা শেখ মুন্নাও, রতন প্রধানের সঙ্গেই কাজ করতে বাহরিন যান। সেখানে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।