রামপুরহাট শ্লীলতাহানি: চিহ্নিত করার পরেও অধরা অপরাধী

বীরভূমের রামপুরহাটে শ্লীলতাহানির ঘটনায় দুই অভিযুক্তকে চিহ্নিত করার পরেও গ্রেফতার করতে ব্যর্থ পুলিস। দুষ্কৃতীদের বাড়ি চিনিয়ে দেওয়ার পরেও কেন তাদের গ্রেফতার করা হল না সেই নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন নিগৃহীতার পরিবারের লোকেরা।তাঁরা পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তুলেছেন। দুষ্কৃতীরা তৃণমূল আশ্রিত বলেও অভিযোগ উঠছে।

Updated: Feb 25, 2013, 06:38 PM IST

বীরভূমের রামপুরহাটে শ্লীলতাহানির ঘটনায় দুই অভিযুক্তকে চিহ্নিত করার পরেও গ্রেফতার করতে ব্যর্থ পুলিস। দুষ্কৃতীদের বাড়ি চিনিয়ে দেওয়ার পরেও কেন তাদের গ্রেফতার করা হল না সেই নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন নিগৃহীতার পরিবারের লোকেরা।তাঁরা পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তুলেছেন। দুষ্কৃতীরা তৃণমূল আশ্রিত বলেও অভিযোগ উঠছে। 
গতরাতে দিদির সম্ভ্রম বাঁচাতে গিয়ে দুষ্কৃতীদের হাতে আক্রান্ত হন ভাই। বাবাকে রাতের খাবার পৌঁছে দিয়ে ফিরছিলেন রামপুরহাট হাসপাতালের এক কর্মীর মেয়ে। অভিযোগ, সেসময় তাঁর ওপর চড়াও হয় দুষ্কৃতীরা।
রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা একটি গাড়িতে তাঁকে তোলার চেষ্টা হয়। ছিড়ে দেওয়া হয়  পোশাক। আক্রান্তের সঙ্গে থাকা পরিচারিকা খবর দেন নিগৃহীতার ভাইকে। দিদির সম্ভ্রম বাঁচাতে ছুটে আসেন ভাই। বাধা পেয়ে দুষ্কৃতীরা বেধড়ক মারধর করে ভাইকে।