মধ্যমগ্রামের পর মেদিনীপুর, ফের গণধর্ষণ, আরও একবার প্রশ্নের মুখে রাজ্যের নারী সুরক্ষা, আরও একবার প্রশ্নের মুখে সমাজের মানসিকতা

মধ্যমগ্রাম, কামদুনির ছায়া মেদিনীপুরেও। দিনের আলোয় জনবহুল জজ কোর্টের সামনে থেকে এক তরুণীকে তুলে নিয়ে গেল কয়েক জন দুষ্কৃতী। তারপর সেই গণধর্ষিতার অচৈতন্য দেহ উদ্ধার হয় শহরের বুকে। এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত এক জনকে গ্রেফতার করা হলেও এই অমানবিক ঘটনায় রীতিমতো স্তম্ভিত, আতঙ্কিত মেদিনীপুরের মানুষ।

Updated: Jan 10, 2014, 09:47 AM IST

মধ্যমগ্রাম, কামদুনির ছায়া মেদিনীপুরেও। দিনের আলোয় জনবহুল জজ কোর্টের সামনে থেকে এক তরুণীকে তুলে নিয়ে গেল কয়েক জন দুষ্কৃতী। তারপর সেই গণধর্ষিতার অচৈতন্য দেহ উদ্ধার হয় শহরের বুকে। এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত এক জনকে গ্রেফতার করা হলেও এই অমানবিক ঘটনায় রীতিমতো স্তম্ভিত, আতঙ্কিত মেদিনীপুরের মানুষ।

দিনেদুপুরে মেদিনীপুরে জনবহুল এলাকা থেকে এক তরুণীকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠল। গত মঙ্গলবার দুপুর দুটো নাগাদ মেদিনীপুরের জজকোর্টে র সামনে বাসস্ট্যান্ডে অপেক্ষা করছিলেন ওই তরুণী। সেই সময় মারুতি করে কয়েকজন দুষ্কৃতী এসে ওই তরুণীকে তুলে নিয়ে যায়। সন্ধ্যে নাগাদ তরুণীর অচৈতন্য দেহ উদ্ধার হয় শহরের একটি রাস্তায়। গুরুতর জখম অবস্থায় ওই তরুণীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিস। ধৃত রঞ্জন দাসকে ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত পুলিস হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছে আদালত।