জেল ফেরত আরাবুলের দলে দর বাড়ল

যে সব নেতারা দলের ভাবমুর্তি নষ্ট করছেন, তাঁদের বরদাস্ত করা হবে না। শনিবার আরাবুল ইসলামকে পাশে বসিয়ে দলের নেতাদের এই সতর্ক বার্তা দিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্যসভাপতি সুব্রত বক্সি। জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর আজ বারুইপুরে দলের বৈঠকে যোগ দিতে যান ভাঙড়ের প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক। ফের দলীয় বৈঠকে যোগ দিলেন সদ্য জেল থেকে ছাড়া পাওয়া আরাবুল ইসলাম।

Updated: Mar 9, 2013, 08:56 PM IST

যে সব নেতারা দলের ভাবমুর্তি নষ্ট করছেন, তাঁদের বরদাস্ত করা হবে না। শনিবার আরাবুল ইসলামকে পাশে বসিয়ে দলের নেতাদের এই সতর্ক বার্তা দিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্যসভাপতি সুব্রত বক্সি। জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর আজ বারুইপুরে দলের বৈঠকে যোগ দিতে যান ভাঙড়ের প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক।
ফের দলীয় বৈঠকে যোগ দিলেন সদ্য জেল থেকে ছাড়া পাওয়া আরাবুল ইসলাম।
এদিন বারুইপুরে জেলা তৃণমূল কংগ্রেস কমিটির বৈঠকে হাজির ছিলেন তিনি। তবে বৈঠকে নাম না করেই আরাবুল ইসলামকে সতর্ক করে দিলেন দলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সী। আরাবুলকে পাশে বসিয়েই তিনি বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনেক আত্মত্যাগের ফলে তৃণমূল কংগ্রেস আজকের জায়গায় পৌঁছেছে। কয়েকজন নেতার জন্য দলের ভাবমুর্তি নষ্ট হতে বসেছে। দল এটা কিছুতেই মেনে নেবে না। 
 
ধরা পড়ার পর অসুস্থ অবস্থায় এসএসকেএমে ভর্তি ছিলেন আরাবুল। ওই সময় মুখ্যমন্ত্রী এসএসকেএমে গেলেও দেখা করেননি আরাবুলের সঙ্গে। এরপর শর্তাধীন জামিনে ছাড়া পেয়েই দলীয় নেতৃত্বের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন আরাবুল ইসলাম।
 
 
এই ঘটনার পর দলের সঙ্গে আরাবুলের দূরত্ব কমবে কিনা, সে নিয়ে জল্পনা ছিলই। পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে দলের ভাবমূর্তির কারণেই আরাবুলকে যে আপাতত চাপেই রাখতে চায় দল, এদিনের বৈঠকে সেকথাই বুঝিয়ে দিলেন তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি।