রবীন্দ্রনাথকে রুখতে তৃণমূলের অস্ত্র বেচারাম

তৃণমূল কংগ্রেসে তোলাবাজি নিয়ে রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্যের অভিযোগের কড়া সমালোচনা করলেন কৃষি দফতরের রাষ্ট্রমন্ত্রী বেচারাম মান্না। তাঁর দাবি, রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য দলের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে মুখ খুলে ঠিক কাজ করেননি। এমনকি সিঙ্গুরের অনিচ্ছুক কৃষকদের জমি ফিরিয়ে দেওয়ার দায় এড়াতেই, রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য সরকার থেকে সরে যেতে চাইছেন বলে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন বেচারাম মান্না।

Updated: Nov 28, 2012, 10:37 AM IST

তৃণমূল কংগ্রেসে তোলাবাজি নিয়ে রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্যের অভিযোগের কড়া সমালোচনা করলেন কৃষি দফতরের রাষ্ট্রমন্ত্রী বেচারাম মান্না। তাঁর দাবি, রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য দলের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে মুখ খুলে ঠিক কাজ করেননি। এমনকি সিঙ্গুরের অনিচ্ছুক কৃষকদের জমি ফিরিয়ে দেওয়ার দায় এড়াতেই, রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য সরকার থেকে সরে যেতে চাইছেন বলে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন বেচারাম মান্না।  
সিঙ্গুর আন্দোলনে দুজনে লড়েছিলেন কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে। কিন্তু রাজ্য মন্ত্রিসভায় রদবদলের পর থেকেই একসময়ের দুই সঙ্গীর মাঝে আজ বিশাল দূরত্ব।  তবু এতদিন রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য এবং বেচারাম মান্না একে অপরের বিরুদ্ধে কোনও মন্তব্য করেননি। কিন্তু মঙ্গলবার তার ব্যতিক্রম হল। তৃণমূল কংগ্রেসে যথেচ্ছ তোলাবাজি চলছে এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তা জানেন বলে অভিযোগ করেছেন রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য। তারপরই সিঙ্গুরের মাস্টারমশাইয়ের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন কৃষি দফতরের রাষ্ট্রমন্ত্রী বেচারাম মান্না।
রদবদলের পর প্রথম প্রথম মুখ বুজে থাকলেও, এখন সরব হয়েছেন রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য। প্রায় প্রতিদিনই নিয়ম করে সাংবাদিকদের কাছে ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন। কেন হঠাত্ দলের বিরুদ্ধে এতটা আক্রমণাত্মক হলেন তিনি? নতুন দফতরের দায়িত্ব নিতে তাঁর এত অনীহাই বা কেন? পুরো ঘটনায় বেচারাম মান্না কিন্তু অন্য রকম গন্ধ পাচ্ছেন। মন্ত্রিসভায় মাস্টারমশায়ের কাজের দক্ষতা ও যোগ্যতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন বেচারাম মান্না।
বেচারাম মান্নার বক্তব্য, রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্যের দলের বিরুদ্ধে অভিযোগ থাকতেই পারে। কিন্তু দলের নিয়ম মেনে তা শীর্ষ নেতৃত্বকে জানানো উচিত ছিল। বিষয়টি নিয়ে মাস্টারমশায়ের প্রকাশ্যে মুখ খোলাকে মোটেই ভাল চোখে দেখছেন না তিনি।