শিবপুর লঞ্চঘাটের ঘটনায় অভিযুক্তদের কড়া শাস্তি দিল বেসু

Last Updated: Tuesday, April 17, 2012 - 18:53

শৃঙ্খলাভঙ্গ যে কোনও ভাবে বরদাস্ত করা হবে না, তা আরও একবার স্পষ্ট করে দিল শিবপুর বেঙ্গল ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড সায়েন্স ইউনিভার্সিটি (বেসু)। শিবপুর লঞ্চঘাটে পুলিসকর্মীদের মারধর ও মহিলাকে কটূক্তি করার ঘটনায় অভিযুক্ত ছাত্রদের মধ্যে একজনকে সারা জীবনের জন্য ও বাকি ২ জনকে দু`বছরের জন্য বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিল বেসু। গত ১২ এপ্রিল রাতে শিবপুর লঞ্চঘাটে পুলিস কর্মীদের মারধর ও মহিলাকে কটূক্তি করার ঘটনায় অভিযুক্ত চতুর্থবর্ষের মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং -এর ছাত্র মন্টু প্রসাদকে সারা জীবনের জন্য বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।
একইসঙ্গে চতুর্থবর্ষের আরও ২ ছাত্র, রাহুল তিওয়ারি ও দীপক কুমারকে ২ বছরের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এই দু‍`জনকে সারা জীবনের জন্য হস্টেল থেকেও বহিষ্কার করা হয়েছে। এছাড়াও ওই দিনের ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে আরও ৬ জন চতুর্থ বর্ষের ছাত্রকে শেষ ৩টি পত্রের পরীক্ষায় বসতে পারবেন না। এই ৬ জন ছাত্র কোনও দিনই আর হস্টেলেও থাকতে পারবেন না বলে জানিয়েছে বেসু কর্তৃপক্ষ। পাশাপাশি এঁদের অভিভাবকদের দেখা করতে বলা হয়েছে।
পুলিসকর্মীদের মারধরের ঘটনায় আরও ৯ ছাত্রের অভিভাবকদের দেখা করে মুচলেকা দিতে বলা হয়েছে।  মন্টু প্রসাদ, রাহুল তিওয়ারি ও দীপক কুমার কিছুদিন ধরে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরে বেরিয়ে মাদক সেবন করতেন বলেও তদন্তে জানা গেছে। গোটা ঘটনার তদন্তের জন্য মোট ৫ সদস্যের কমিটি তৈরি করেছিল বিশ্ববিদিযালয় কর্তৃপক্ষ। সোমবার কমিটি রিপোর্ট জমা দেয়। কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী, মোট ১৮ জন ছাত্রের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিল কর্তৃপক্ষ। 



First Published: Tuesday, April 17, 2012 - 18:53


comments powered by Disqus