গোর্খাল্যান্ডের দাবি ছেড়ে পাহাড়ের বাসিন্দাদের উন্নয়নের বার্তা দিলেন বিমল গুরুং

Last Updated: Monday, December 30, 2013 - 09:38

উন্নয়নই এখন তাঁর একমাত্র লক্ষ্য। পাহাড়ের বাসিন্দাদের কাছে টানতে বার্তা দিলেন গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা প্রধান বিমল গুরুং। জিটিএ-র চিফ এক্সিকিউটিভ পদে ফের শপথ নিয়ে গতকালই দার্জিলিং ফিরেছেন তিনি। গুরুংকে স্বাগত জানাতে বাগডোকরা বিমানবন্দরে হাজির ছিলেন মোর্চার কর্মী-সমর্থকরা। কয়েক মাস আগেও পৃথক গোর্খাল্যান্ডের প্রশ্নে যে দূরত্বটা রাজ্য সরকারের সঙ্গে তৈরি হয়েছিল মোর্চার, সে দূরত্বটা এখন অতীত। জিটিএ-র পদে ফের শপথ নিয়েছেন বিমল গুরুং। দার্জিলিং ফেরার পর তাই মোর্চা সভাপতি এখন মন দিতে চান পাহাড়ের উন্নয়নে। বাগডোগরা বিমানবন্দরে নেমে গুরুংয়ের প্রতিশ্রুতি, পাহাড়ের উন্নয়নে জোর গতিতে কাজ করবে জিটিএ।

মোর্চার নেতা কর্মীদের দাবি, পাহাড়ের উন্নয়নের জন্য এগিয়ে আসতে হবে রাজ্য সরকারকে। চিফ এক্সিকিউটিভ পদে বিমল গুরুংকে কাজ করতে দিতে হবে স্বাধীনভাবে।

এর আগে মোর্চার পৃথক গোর্খাল্যান্ড আন্দোলন এবং লাগাতার বনধের জেরে স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিল পাহাড়ের জনজীবন। তার জেরে পাহাড়ের মানুষের কাছে বিরাগভাজন হচ্ছিল মোর্চা। মোর্চার মধ্যে ভাঙনও দেখা গিয়েছে। শক্তিশালী হয়েছে মোর্চা বিরোধী বলে পরিচিত অন্য সংগঠনগুলি। সে জন্যই কী জিটিএ প্রধানের পদে শপথ নেওয়ার পর, উন্নয়নের বার্তা দিয়ে পাহাড়বাসীকে ফের কাছে টানতে চাইছেন গুরুং? প্রশ্নটা কিন্তু উঠছেই।



First Published: Monday, December 30, 2013 - 09:38
comments powered by Disqus