নিষেধাজ্ঞা স্বত্বেও রুখছে না বাইক বাহিনী

Last Updated: Tuesday, July 9, 2013 - 17:41

নির্বাচন কমিশনের নিষেধাজ্ঞাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় দাপিয়ে বেড়াচ্ছে  তৃণমূলের বাইক বাহিনী। অনেক জায়গায় বাইক মিছিল থেকেই বিরোধী প্রার্থী ও ভোটারদের হুমকি দেওয়া হল। 
হ্যান্ডেলে বাঁধা ঘাসফুলের পতাকা। কবজির নিয়ন্ত্রণে এক্সিলারেটর। বেপরোয়া দৃষ্টি। গ্রামের মেঠো পথে তুফান তুলে ছুটছে বাইক বাহিনী। পঞ্চায়েত ভোটের মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার সময় থেকেই বারবার বাইক বাহিনীর অত্যাচারের অভিযোগ তুলেছে বিরোধীরা। বিরোধী প্রার্থীদের শাসানো, ভোটারদের ভয় দেখানো, এসবই বাইক বাহিনীর কাজ। নির্বাচন কমিশনের ডাকে সর্বদল বৈঠকে তৃণমূলের বাইক বাহিনী নিয়ে ক্ষোভ উগড়ে দেয় বিরোধীরা। তারপরই সোমবার নির্বাচন কমিশন নির্দেশ দেয়, ভোটপ্রচারে একটির বেশি বাইক ব্যবহার করতে হলে সংশ্লিষ্ট প্রার্থীকে জেলাশাসকের অনুমতি নিতে হবে।
কমিশনের নির্দেশকে যে শাসক দল থোড়াই কেয়ার করছে তার ছবি ধরা পড়ল মঙ্গলবার, রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে। আগে বারবার রাজ্য নির্বাচন কমিশনারকে ব্যক্তিগত আক্রমণ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, মুকুল রায়রা। দিয়েছেন বদলার হুমকি। নেত্রীর সুরে সুর মিলিয়েছেন মন্ত্রী, সাংসদ, নেতারা। আরও এক ধাপ এগিয়ে সোমবার নির্বাচন কমিশনারকে সরিয়ে দেওয়ার হুমকিও দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।
দলের নেত্রী আবার সরকারেরও প্রধান। নির্বাচন কমিশনারকে সরিয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে তিনি যে বার্তা দিয়েছেন, মঙ্গলবার সেটাই করে দেখালেন তৃণমূলের নেতাকর্মীরা। অবাধে চলল বাইক বাহিনীর বেপরোয়া দাপট। বেপরোয়া চোখগুলি যেন বলে গেল, রাখে দিদি মারে কে।



First Published: Tuesday, July 9, 2013 - 17:53


comments powered by Disqus