মাধ্যমিকের প্রথম দিনেই গণটোকাটুকি জেলা জুড়ে

গতবছরের মতো এবারও মাধ্যমিক পরীক্ষার প্রথম দিনেই গণটোকাটুকি চলল উত্তর দিনাজপুরের জেলা জুড়ে। সব চেয়ে বেশি অভিযোগ এসেছে ইসলামপুর, চাকুলিয়া, করণদিঘি এলাকা থেকে। গণটোকাটুকি চলে চোপড়া ও গোয়ালপোখরেও। গ্রেফতার হয়েছে ৩৫ জন। অভিযোগ, ছিল না পর্যাপ্ত পুলিসি ব্যবস্থা। তাই নির্ভয়ে দেওয়াল বেয়ে উঠেই চলল টুকলির সাহায্য।

Updated: Feb 25, 2013, 09:32 PM IST

গতবছরের মতো এবারও মাধ্যমিক পরীক্ষার প্রথম দিনেই গণটোকাটুকি চলল উত্তর দিনাজপুরের জেলা জুড়ে। সব চেয়ে বেশি অভিযোগ এসেছে ইসলামপুর, চাকুলিয়া, করণদিঘি এলাকা থেকে। গণটোকাটুকি চলে চোপড়া ও গোয়ালপোখরেও। গ্রেফতার হয়েছে ৩৫ জন। অভিযোগ, ছিল না পর্যাপ্ত পুলিসি ব্যবস্থা। তাই নির্ভয়ে দেওয়াল বেয়ে উঠেই চলল টুকলির সাহায্য।
স্থানীয় সিপিআইএম নেতা সুবীর বিশ্বাসের অভিযোগ, গতকাল শিক্ষামন্ত্রীর বক্তব্যের পরই এইভাবে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে দুষ্কৃতীরা। প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি প্রদীপ ভট্টাচার্যও ঘটনার জন্য শিক্ষামন্ত্রীর বক্তব্যকেই দায়ী করেছেন। ঘটনায় বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিস। এদের মধ্যে বেশিরভাগের বিরুদ্ধেই জামিন অযোগ্য ধারায় সরকারি সম্পত্তি নষ্টের অভিযোগ আনা হয়েছে। গত বছরও মাধ্যমিকের ইংরেজি পরীক্ষার দিনে গণটোকাটুকির অভিযোগ উঠেছিল উত্তর দিনাজপুরের বিভিন্ন ব্লকে। তবুও এবারের পরীক্ষায় প্রশাসন কেন বাড়তি ব্যবস্থা নিল না সেবিষয়েই প্রশ্ন উঠছে।
এবার মাধ্যমিক পরীক্ষার অন্য ছবি নিয়ে খবর--
পশ্চিম মেদিনীপুরের কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারে বসেই পরীক্ষা দিলেন ২৯ জন বন্দি। এদের মধ্যে আটজন মাওবাদী সন্দেহে ধৃত। সংশোধনাগারের লাইব্রেরি রুমেই এই বন্দিদের পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়।