নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগ মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে

নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগ উঠল মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে। হুগলির জনাইয়ে নির্বাচনী সভায় মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা পঞ্চায়েত ভোটের জন্য আটকে রয়েছে একলক্ষ চাকরি। ভোটের পরই চাকরি দেওয়া হবে। অন্যদিকে রাজ্য নির্বাচন কমিশনার মীরা পাণ্ডেকে ব্যক্তিগত আক্রমণের ধারা অব্যাহত ছিল এদিনও। মন্ত্রী বেচারাম মান্না কমিশনারের উদ্দেশে কটূক্তি করেন। রাজ্যে প্রথম দফার পঞ্চায়েত নির্বাচন তখনও শেষ হয়নি। এরই মাঝে বৃহস্পতিবার দুপুরে হুগলির চণ্ডীতলায় নির্বাচনী জনসভায় একলক্ষ চাকরির প্রতিশ্রুতি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। নির্বাচনী আচরণবিধির তোয়াক্কা না করেই।

Updated: Jul 11, 2013, 08:10 PM IST

নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগ উঠল মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে। হুগলির জনাইয়ে নির্বাচনী সভায় মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা পঞ্চায়েত ভোটের জন্য আটকে রয়েছে একলক্ষ চাকরি। ভোটের পরই চাকরি দেওয়া হবে। অন্যদিকে রাজ্য নির্বাচন কমিশনার মীরা পাণ্ডেকে ব্যক্তিগত আক্রমণের ধারা অব্যাহত ছিল এদিনও। মন্ত্রী বেচারাম মান্না কমিশনারের উদ্দেশে কটূক্তি করেন। রাজ্যে প্রথম দফার পঞ্চায়েত নির্বাচন তখনও শেষ হয়নি। এরই মাঝে বৃহস্পতিবার দুপুরে হুগলির চণ্ডীতলায় নির্বাচনী জনসভায় একলক্ষ চাকরির প্রতিশ্রুতি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। নির্বাচনী আচরণবিধির তোয়াক্কা না করেই।
 
ক্ষমতায় আসার পর থেকেই ঋণের ওপর সুদ মকুবের জন্য কেন্দ্রের কাছে বারবার দরবার করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। সুদ মকুব না করার পিছনে কেন্দ্র ষড়যন্ত্র করছে বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি। বৃহস্পতিবার সভায় কেন্দ্রের বিরুদ্ধে মামলার ইঙ্গিত দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।
 
গত বছরের সেপ্টেম্বর থেকেই পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে কমিশনের সঙ্গে টানাপোড়েন শুরু হয় রাজ্য সরকারের। অনড় মনোভাবের জন্য বারবার ব্যক্তিগত আক্রমণের শিকার হন কমিশনার মীরা পাণ্ডে।  জনাইয়ের জনসভাতেও সেই ধারা বজায় ছিল।  এদিন নির্বাচন কমিশনারকে কমি মাসি বলে কটূক্তি করেন রাজ্যের মন্ত্রী বেচারাম মান্না।  
নিজের আঁকা ছবি নিয়ে এদিন মুখ্যমন্ত্রী সিপিআইএমের সমালোচনার জবাব দিয়েছেন।