ওসির বিরুদ্ধেই উঠল অপহরণের অভিযোগ

ডানকুনি থানার ওসির বিরুদ্ধে অপহরণে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুলে হুগলির পুলিস সুপারকে চিঠি দিল এক নাবালিকার পরিবার। তিনমাস আগে ডানকুনির মনবেড় থেকে এক নাবালিকা নিখোঁজ হয়ে যায়। বাড়ির পরিচারিকার দাদার বিরুদ্ধে অপহরণের অভিযোগ তুলে ডানকুনি থানার দ্বারস্থ হয় নিখোঁজের পরিবার।

Updated: Jun 30, 2013, 11:10 PM IST

ডানকুনি থানার ওসির বিরুদ্ধে অপহরণে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুলে হুগলির পুলিস সুপারকে চিঠি দিল এক নাবালিকার পরিবার। তিনমাস আগে ডানকুনির মনবেড় থেকে এক নাবালিকা নিখোঁজ হয়ে যায়। বাড়ির পরিচারিকার দাদার বিরুদ্ধে অপহরণের অভিযোগ তুলে ডানকুনি থানার দ্বারস্থ হয় নিখোঁজের পরিবার। ১৭ জুন হাওড়ার ধূলাগড়ে খোঁজ মেলে ওই নাবালিকার। অভিযুক্ত যুবকের সঙ্গেই পাওয়া যায় তাকে।
সেখানে স্বপন সামন্ত নামে এক ব্যক্তির আশ্রয়ে দুজনে ছিল। এরপরেই ডানকুনি থানার ওসি, পার্থপ্রতিম পালের বিরুদ্ধে অপহরণে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ এনেছে নাবালিকার পরিবার। হুগলির পুলিস সুপারকে দেওয়া চিঠিতে পরিবারের অভিযোগ, স্বপন সামন্তর সঙ্গে শুরু থেকেই যোগাযোগ ছিল ডানকুনি থানার ওসির। উদ্ধার করার পর নাবালিকাকে লিলুয়ার একটি হোমে রেখেছে পুলিস। অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। আশ্রয়দাতা স্বপন সামন্ত পলাতক। যদিও, শ্রীরামপুর মহকুমা আদালতে বিচারকের কাছে ওই নাবালিকা জানিয়েছে, তাকে অপহরণ করা হয়নি।