হাওড়ায় খুন সিপিআইএম কর্মী, হামলা অন্যান্য জেলাতেও

Last Updated: Tuesday, May 1, 2012 - 21:27

হাওড়ার উলুবেড়িয়ায় খুন হলেন এক সিপিআইএম কর্মী রহমান আলি। রোজকার মতই মঙ্গলবার সকালে কাজে বেরিয়েছিলেন উলুবেড়িয়ার শিকল গ্রামের বাসিন্দা বছর ৪৫-এর রহমান আলি। বাড়ি থেকে কিছু দুরেই তাঁর ওপর হামলা চালায় একদল সশস্ত্র দুষ্কৃতী। ধারাল অস্ত্র দিয়ে তাঁকে আঘাত করা হয়। 
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, গুরুতর জখম অবস্থায় প্রায় দু থেকে আড়াই ঘন্টা তাঁকে ফেলে রাখা হয়। সাহায্যর জন্য যাতে কেউ এগিয়ে না আসে তা নিয়েও হুমকি দেয় দুষ্কৃতীরা। ঘন্টা তিনেক পর এই সিপিআইএম কর্মীকে  উদ্ধার করে শ্যামপুর থানার পুলিস। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই মৃত্যু হয় রহমান আলির। দুষ্কৃতীরা রহমান আলির বাড়িতেও হামলা চালায়। আহত হয়েছেন তাঁর ভাই। হামলাকারীরা সকলেই তৃণমূল কংগ্রেস  কর্মী বলে অভিযোগ সিপিআইএমের। এলাকায় তল্লাসি চালিয়ে বেশকিছু অস্ত্রশস্ত্র উদ্ধার করেছে পুলিস। ঘটনায় তৃণমূলের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছে সিপিআইএম।
সিপিআইএম কর্মীর উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারুইপুর ও ভাঙড়েও। মঙ্গলবার সকালে সূর্যপুর হাট থেকে ফেরার সময়ে আক্রান্ত হন দক্ষিণ পদ্মজোলার বাসিন্দা আসরফ সর্দার।  কদমতলা মোড়ের কাছে একদল দুষ্কৃতী চড়াও হয় তাঁর ওপর। গাছে বেঁধে ওই নেতাকে বেধড়ক মারধর করা হয়। প্রতিবাদে শ্যামপুর বিধানসভা কেন্দ্রে ১২ ঘণ্টা বন্‌ধের ডাক দিয়েছে সিপিআইএম।  অন্যদিকে, দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার ভাঙড়ের বোদরা গ্রামে মে দিবসের পতাকা তোলার সময় দুষ্কৃতীরা চড়াও হয় এক সিপিআইএম কর্মীর উপর। পুলিসে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। গোটা ঘটনায় তৃণমূল কংগ্রেসকেই কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছে জেলা সিপিআইএম নেতৃত্ব।
 



First Published: Tuesday, May 1, 2012 - 21:27


comments powered by Disqus