ছাত্রীর শ্লীলতাহানির প্রতিবাদে আজ পাহাড়ে বারো ঘণ্টার বনধ

ফের অশান্তির আগুন পাহাড়ে। স্কুল ছাত্রীর শ্লীলতাহানীর অভিযোগ সিআরপিএফ জওয়ানের বিরুদ্ধে। প্রতিবাদে থানা ঘেরাও, পুলিসের লাঠি, শূন্যে গুলি। দফায় দফায় জনতা-পুলিস সংঘর্ষ। একটি বাসেও আগুন ধরিয়ে দেয় উত্তেজিত জনতা। ঘটনার প্রতিবাদে আজ বারো ঘণ্টা পাহাড় বনধের ডাক দিয়েছে বিদ্যার্থী মোর্চা।

Updated: Sep 29, 2013, 10:00 AM IST

ফের অশান্তির আগুন পাহাড়ে। স্কুল ছাত্রীর শ্লীলতাহানীর অভিযোগ সিআরপিএফ জওয়ানের বিরুদ্ধে। প্রতিবাদে থানা ঘেরাও, পুলিসের লাঠি, শূন্যে গুলি। দফায় দফায় জনতা-পুলিস সংঘর্ষ। একটি বাসেও আগুন ধরিয়ে দেয় উত্তেজিত জনতা। ঘটনার প্রতিবাদে আজ বারো ঘণ্টা পাহাড় বনধের ডাক দিয়েছে বিদ্যার্থী মোর্চা।
এক ছাত্রীর শ্লীলতাহানির চেষ্টার অভিযোগ ঘিরে অগ্নিগর্ভ হয়ে উঠল পাহাড়ের পরিস্থিতি। অভিযোগ, শনিবার সকালে  দার্জিলিংয়ের ঘুম ভঞ্জন এলাকায় এক স্কুল ছাত্রীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে অরুণ প্রামাণিক নামে র‍্যাফ এর এক জওয়ান। ছাত্রীর চিত্কারে গ্রামের বাসিন্দারা ওই জওয়ানকে ধরে ফেলেন। পরে তাঁকে পুলিসের হাতে তুলে দেয় জনতা। এই ঘটনার প্রতিবাদে এদিন জোড় বাংলো ও দার্জিলিং থানা ঘেরাও করে স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা। পরে সাধারণ মানুষও বিক্ষোভে যোগ দেন। বিকেলের দিকে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে লাঠি চার্জ করে পুলিস। ক্ষিপ্ত জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে শূন্যে প্রথমে তিন রাউন্ড ও পরে দু রাউন্ড গুলি চালায় পুলিস।  সন্ধেয় সিংমারি পুলিস আউট পোস্টে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে  জনতা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে  শূন্যে আবারও তিন রাউন্ড গুলি চালায় পুলিস। এর আগে বিভিন্ন এলাকায় ছাত্রছাত্রী ও সাধারণ মানুষের সঙ্গে সংঘর্ষ বাধে পুলিসের।  ঘটনার জেরে বন্ধ হয়ে যায় দোকানপাট। ঘটনার প্রতিবাদে বারো ঘণ্টার পাহাড় বনধের ডাক দিয়েছে বিদ্যার্থী মোর্চা।