ভদ্রেশ্বরে চটকল কর্তা খুনের ভয়াবহতা ছাপিয়ে খবরের শিরোনামে সরকার বিরোধী তরজা

জঙ্গি শ্রমিক আন্দোলনের জেরে ভদ্রেশ্বরে খুন হলেন চটকলের কর্তা। এই মর্মান্তিক ঘটনাকে ঘিরেই রাজনৈতিক ফয়দা তুলতে ব্যস্ত রাজ্যের শাসক থেকে বিরোধী সব শিবির। ঘটনার ভয়াবহতার থেকেও বড় হয়ে উঠছে রাজনৈতিক দলগুলির একে অন্যের উপর দায় চাপানোর তরজা।

Updated: Jun 17, 2014, 11:20 AM IST

জঙ্গি শ্রমিক আন্দোলনের জেরে ভদ্রেশ্বরে খুন হলেন চটকলের কর্তা। এই মর্মান্তিক ঘটনাকে ঘিরেই রাজনৈতিক ফয়দা তুলতে ব্যস্ত রাজ্যের শাসক থেকে বিরোধী সব শিবির। ঘটনার ভয়াবহতার থেকেও বড় হয়ে উঠছে রাজনৈতিক দলগুলির একে অন্যের উপর দায় চাপানোর তরজা।

রবিবার জঙ্গি শ্রমিক আন্দোলনের জেরে খুন হন ভদ্রেশ্বরের নর্থব্রুক জুটমিলের সিইও হরিকিষণ মাহেশ্বরী। ঘটনার জন্য সিপিআইএম, বিজেপিকে কাঠগড়ায় তোলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের একাংশের মতে লোকসভা ভোটে এই অংশে বিজেপি ভাল ফল করেছে। আর সেই কারণেই তৃণমূল তদন্ত শুরুর আগেই বিজেপিকে টার্গেট করেছে। যদিও গত কাল মিল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে শ্রমিক সংগঠনগুলির বৈঠকে আইএনটিটিইউসি নেতারাও উপস্থিত ছিলেন।

মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্যকে অবশ্য সমর্থন করেছেন এলাকার বিধায়ক। এই পরিস্থিতিতেই সোমবার ঘটনাস্থলে যান বিজেপি প্রতিনিধিরা। ঘটনার দায় যে তাদের নয় বারবার তা জানিয়েছেন তাঁরা। যদিও মিল কর্তৃপক্ষ গোটা বিষয়টিকে দুর্ঘটনা হিসেবেই দেখছে। ঘটনার ভয়াবহতাকে ছাপিয়ে গিয়েছে রাজনৈতিক দলগুলির তরজা। এই ধরণের আন্দোলন আদৌ সমর্থন যোগ্য কি না? এই ঘটনায় প্রকৃত দোষী কারা ? এই সব প্রশ্নের থেকেও বড় হয়ে দাঁড়িয়েছে রাজনৈতিক দলগুলির তরজা।