এভারেস্টের তুষারধসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৩, নামল হেলিকপ্টার

এভারেস্ট অভিযানে খুম্বু হিমবাহে প্রবল তুষারধসে মৃত্যু হল ১৩ জন শেরপা গাইডের। আহত হয়েছেন ৩ জন পর্বতারোহী। ৭ জন পর্বতারোহীর খোঁজ মিলছে না। তুষারধসে চাপা পড়ে আহত অনেকে। আহতদের উদ্ধারে নামানো হয়েছে কপ্টার।

Updated: Apr 19, 2014, 11:16 AM IST

এভারেস্ট অভিযানে খুম্বু হিমবাহে প্রবল তুষারধসে মৃত্যু হল ১৩ জন শেরপা গাইডের। আহত হয়েছেন ৩ জন পর্বতারোহী। ৭ জন পর্বতারোহীর খোঁজ মিলছে না। তুষারধসে চাপা পড়ে আহত অনেকে। আহতদের উদ্ধারে নামানো হয়েছে কপ্টার।

মাউন্ট এভারেস্ট অভিযানে বেস ক্যাম্প থেকে এক নম্বর শিবিরে পৌছতে হলে পেরোতে হয় খুম্বু আইসফল। যে কোনও সময় তুষারধসের সম্ভাবনা থাকে এই খুম্বু হিমবাহে। সাধারণত বেশি রোদ ওঠার আগেই পেরিয়ে যেতে হয় এই বিপজ্জনক হিমবাহ। সেকথা মাথায় রেখেই শুক্রবার ভোরে মূল শিবির থেকে ক্যাম্প ওয়ানের পথে রওনা হয়েছিল শেরপা গাইড ও পর্বতারোহীদের দলটি। কিন্তু সকাল পৌনে ৭টা নাগাদ বিশাল তুষারধস আছড়ে পড়ে খুম্বু হিমবাহে। ভয়ঙ্কর এই তুষারধসে চাপা পড়ে এখনও পর্যন্ত তেরোজন শেরপা গাইডের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

আহত হয়েছেন ৩ জন। নেপালের পর্যটক মন্ত্রক সূত্রে খবর, তুষারধসের সময় শেরপা গাইডদের সঙ্গে ছিলেন নেপাল ও বিদেশের দুটি পর্বতারোহী টিমের পনেরোজন সদস্য। তাঁদের মধ্যে সাতজনের খোঁজ মেলেনি। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে উদ্ধার কাজে নামানো হয় হেলিকপ্টার। নেপালের সেনাবাহিনী , পুলিস এবং অন্যান্য গাইডেরাও উদ্ধার কাজে হাত লাগান। দুর্ঘটনায় মৃত তেরো জন শেরপা গাইডের দেহ নামিয়ে আনা হয়।আহত তিন পর্বতারোহীকে উদ্ধার করে পাঠানো হয়েছে কাঠমাণ্ডুতে। বাকিদের খোঁজে তল্লাসি জারি রয়েছে। যে জায়গায় তুষারধস নেমেছে তারও ওপরের শিবিরে রয়েছেন প্রায় একশ জন শেরপা ও পর্বতারোহী। খুম্বু হিমবাহ পেরিয়ে তাঁদের নামিয়ে আনাটাই এখন বড় চ্যালেঞ্জ উদ্ধারকারীদের কাছে।