চন্দননগরে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করতে গিয়ে আক্রান্ত , গ্রেফতার চার

বারাসত এবং হাওড়ার পর, হুগলির চন্দননগরে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করতে গিয়ে এবার আক্রান্ত হলেন বাবা এবং দাদা। ঘটনা রবিবার রাত সাড়ে নটা নাগাদ। প্রাইভেট টিউশন থেকে বাড়ি ফিরছিলেন দ্বাদশ শ্রেণির দুই ছাত্রী।

Updated: Sep 17, 2012, 09:17 AM IST

বারাসত এবং হাওড়ার পর, হুগলির চন্দননগরে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করতে গিয়ে এবার আক্রান্ত হলেন বাবা এবং দাদা। ঘটনা রবিবার রাত সাড়ে নটা নাগাদ। প্রাইভেট টিউশন থেকে বাড়ি ফিরছিলেন দ্বাদশ শ্রেণির দুই ছাত্রী। সঙ্গে ছিলেন ওই দুই বোনের দাদা। তিনি সাইকেলেই ছিলেন।
স্থানীয় জেলাপাড়ায় কিছু যুবক ওই দুই বোনের উদ্দেশ্যে কটূক্তি করে বলে অভিযোগ। প্রতিবাদ করতে গেলে ওই দুই ছাত্রীর দাদাকে মারধর শুরু করে পাঁচ-ছয়জন যুবক।
বাড়ির অদূরেই এমন ঘটনা হওয়াই ছুটে আসেন ওই ছাত্রীদের বাবাও। অভিযোগ, ততক্ষণে ওই ছাত্রীর দাদার মুখ ফাটিয়ে দিয়েছে দুষ্কৃতীরা।
এরপর ছাত্রীর বাবাকেও মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। চন্দননগর হসাপাতালে ওই বাবা এবং ছেলের চিকিত্সা হয়। থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন তাঁরা। দুষ্কৃতীরা পাড়ারই বাসিন্দা বলে জানিয়েছেন তাঁরা। পুলিস দুষ্কৃতীদের খোঁজে তল্লাসি শুরু করে। রাতভর অভিযান চালিয়ে চারজনকে গ্রেফতার করে পুলিস।