মানুষের ভিড়ে গঙ্গাসাগরে আজ এক টুকরো ভারত

Last Updated: Monday, January 14, 2013 - 09:16

গঙ্গা সাগরে আজ মকরস্নান। মানুষের ঢল নেমেছে গঙ্গাসাগরে। পঞ্জিকা মতে আজ দুপুর একটা তেরো মিনিট থেকে মঙ্গলবার দুপুর একটা তেরো মিনিট পর্যন্ত পুণ্যস্নানের যোগ রয়েছে। মাহেন্দ্রযোগে ডুব দেওয়ার অপেক্ষা না করে  পুণ্যস্নান সেরে ফিরে গেছেন অনেকেই।  কুম্ভমেলা এবার থাবা বসাচ্ছে গঙ্গাসাগরের ভিড়ে। অন্যবারের তুলনায় ভিড় খানিকটা পাতলা। কিন্তু তাতেও হারিয়ে যায়নি সাগরমেলার ফি বছরের চিত্র। এবারেও লাখো মানুষের ভিড়ে সাগরে হাজির একটুকরো ভারত।
এরইমধ্যে রবিবার রাতের দিকে আট নম্বর লটের চার নং জেটিতে ট্রলারের ধাক্কা লেগে বিপত্তি বাধে। ক্ষতিগ্রস্থ হয় জেটির একাংশ। আটকে পড়েন কয়েক হাজার পূণ্যার্থি।
সব তীর্থ বারবার। গঙ্গাসাগর একবার। এ প্রবাদের দিন আজ অতীত। আগে গঙ্গাসাগর পৌঁছতে পুণ্যার্থীদের অনেক কাঠখড় পোড়াতে হত। কিন্তু আজ আর সেদিন নেই। ট্রেন, বাস , জলপথে অনায়াসেই পৌঁছনো যায় গঙ্গাসাগরে।  মকর সংক্রান্তির ভিড় এড়াতে আগেভাগেই গঙ্গাসাগরে স্নান সেরে গেছেন প্রায় চারলক্ষ পুণ্যার্থী।
পুণ্যস্নান সোমবার। সেই পুণ্যস্নানের টানে রবিবার দিনভর অনেকেই এসেছেন মেলা প্রাঙ্গনে। আট নম্বর লট থেকে তিনটি ভেসেল  সাগর প্রাঙ্গনে পুণ্যার্থীদের নিয়ে যাওয়া হয়।
প্রশাসনের নির্দেশে বিকেল পাঁচটার পর নামখানা থেকে চেনাগুড়ি হয়ে সাগরদ্বীপে ভেসেল চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে।
কোনওরকম অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে চলছে কড়া নজরদারি। সিসিটিভি-র ফুটেজ সাগরদ্বীপের কন্ট্রোল রুম থেকে সরাসরি চলে যাচ্ছে মহাকরণে এডিজি আইনশৃঙ্খলার ঘরে।
সাগরদ্বীপের আট নম্বর লট, কচুবেড়িয়া, সাগর মোহনায় নজরদারি চালাচ্ছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর দশটি স্পিড বোট। রাজ্য পুলিসের ১২টি লঞ্চ নজরদারি করছে। ডুবুরিও প্রস্তুত রাখা হয়েছে। আকাশপথেও নজরদারি করছে উপকূলরক্ষী বাহিনীর হেলিকপ্টার।
রবিবার মেলার প্রস্ততি ঘুরে দেখেন জনস্বাস্থ্য কারিগরী মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়। নিরাপত্তার জন্য মোতায়েন করা হয়েছে দেড় হাজার পুলিসকর্মী। ইতিমধ্যেই ছিনতাইতের চেষ্টার অভিযোগে কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।



First Published: Monday, January 14, 2013 - 09:16


comments powered by Disqus
Live Streaming of Lalbaugcha Raja