জিটিএ বিজ্ঞপ্তি জারি, বেঁকে বসতে পারে মোর্চা

জিটিএ-র বিজ্ঞপ্তি জারি করল রাজ্য সরকার। মঙ্গলবারই মহাকরণে বিজ্ঞপ্তি জারির কথা জানিয়েছিলেন মুখ্যসচিব সমর ঘোষ। তার সঙ্গে তিনি স্পষ্ট করে দেন, জিটিএ-র নির্বাচন হবে ডিজিএইচসি-র আওতায়। এতেই বেঁকে বসেছে মোর্চা নেতৃত্ব। মোর্চার পাল্টা হুঁশিয়ারি, ডিজিএইচসি-র এলাকায় নির্বাচন হলে সেই নির্বাচনে সামিল হবে না তারা।

Updated: Mar 14, 2012, 09:10 PM IST

জিটিএ-র বিজ্ঞপ্তি জারি করল রাজ্য সরকার। মঙ্গলবারই মহাকরণে বিজ্ঞপ্তি জারির কথা জানিয়েছিলেন  মুখ্যসচিব সমর ঘোষ। তার সঙ্গে তিনি স্পষ্ট করে দেন, জিটিএ-র নির্বাচন হবে ডিজিএইচসি-র আওতায়। এতেই বেঁকে বসেছে মোর্চা নেতৃত্ব। মোর্চার পাল্টা হুঁশিয়ারি, ডিজিএইচসি-র এলাকায় নির্বাচন হলে সেই নির্বাচনে সামিল হবে না তারা।
মঙ্গলবার মহাকরণে রাজ্যের মুখ্যসচিব জানিয়েছিলেন বুধবার জিটিএ-র বিজ্ঞপ্তি জারি হবে। তারপরই পাহাড়ে নির্বাচনী প্রক্রিয়া চালু করতে শুরু হবে ডিলিমিটেশনের কাজ। ডিলিমিটেশনের কাজ শেষ হলে জারি করা হবে নির্বাচনী বিজ্ঞপ্তি। তবে নির্বাচনী প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে পুরনো ব্যবস্থাই বহাল রেখেছে রাজ্য সরকার। মুখ্যসচিব জানিয়েছেন, জিটিএ-র নির্বাচন হবে দার্জিলিং গোর্খা হিল কাউন্সিল বা ডিজিএইচসি-র আওতাতেই। সংবিধান অনুযায়ী এই নির্বাচন পরিচালনা করবে রাজ্য নির্বাচন কমিশন।
 
এখানেই বেঁকে বসেছে মোর্চা। গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার দাবি ছিল জিটিএ-তে তরাই-ডুয়ার্সের ৩৯৬টি মৌজার অন্তর্ভুক্তি না-হলে পাহাড়ে নির্বাচন সম্ভব নয়। কিন্তু মুখ্যসচিব জানিয়ে দিয়েছেন, নির্বাচন হবে ডিজিএইচসি এলাকায়। মোর্চার সাধারণ সম্পাদক রোশন গিরি বুধবার ফের স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, ডিজিএইচসি এলাকায় নির্বাচন হলে সেই নির্বাচনে অংশ নেবেন না তাঁরা।
ডুয়ার্স তরাই জিটিএর অর্ন্তভূক্ত না হলে নির্বাচন মেনে নেবেন না বলে জানিয়েছেন পাহাড়ের মোর্চা সমর্থকরাও।
১৬ মার্চ ফের পুরনো দাবি নিয়েই মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে আসছে মোর্চা নেতৃত্ব। তরাই-ডুয়ার্স জিটিএর অর্ন্তভূক্ত না-হলে মোর্চা নির্বাচনের বিরোধিতায় নামবে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন রোশন গিরি।