জামুরিয়ায় ১৫ বছরের কিশোরীকে বাড়ি থেকে টেনে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেফতার অভিযুক্ত

Last Updated: Saturday, February 1, 2014 - 21:02

জামুড়িয়া থানার নিঘায় এক ১৫ বছরের কিশোরীকে বাড়ি থেকে জোর করে টেনে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল। অভিযুক্ত প্রতিবেশী সোনু নুনিয়াকে গ্রেফতার করেছে পুলিস। কাল তাকে আসানসোল আদালতে তোলা হবে। নিগৃহীতা কিশোরীকে ভর্তি করা হয়েছে আসানসোল হাসপাতালে। পুলিস জানিয়েছে, ঘটনার সময় বাড়িতে কেউ ছিলেন না। নিগৃহীতা কিশোরীর বাবা গিয়েছিলেন কীর্তনে অংশ নিতে। এবং অন্য সদস্যরা গিয়েছিলেন বাড়ির পাশে সরস্বতী পুজোর প্যান্ডেলের কাজ দেখতে। সেই সুযোগে অতর্কিতে হামলা চালায় সোনু।

চিৎকার শুনে দৌড়ে আসেন কিশোরীর দাদা এবং তাঁর এক বন্ধু। তাঁদের মারধর করে মেয়েটিকে নিয়ে যায় সোনু। এরপর বাড়িতে চলে আসেন পরিবারের লোকজন এবং অন্য পাড়া-প্রতিবেশীরাও। সবাই যান পাশের শ্রীপুর ফাঁড়িতে। পুলিস, প্রতিবেশী এবং বাড়ির লোকজন যৌথ ভাবে খুঁজতে শুরু করে কিশোরীকে। সোনুর বাড়ির পাশেই তাকে অচৈতন্য অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন তাঁরা।

কিশোরীকে ভর্তি করা হয় আসানসোল জেলা হাসপাতালে। আজ দুপুরে দিকে অভিযোগ দায়ের হয় শ্রীপুর ফাঁড়িতে। সন্ধের দিকে জামুড়িয়া থেকে গ্রেফতার করা হয় সোনুকে। প্রাথমিক তদন্তে ধর্ষণের ঘটনা প্রমাণিত হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিস।



First Published: Saturday, February 1, 2014 - 21:02
TAGS:


comments powered by Disqus