`মাওবাদী` তকমা নিয়েও প্রতিবাদী কামদুনি

Last Updated: Thursday, June 20, 2013 - 23:21

প্রতিবাদী কামদুনিকে সিপিআইএম আর মাওবাদী তকমা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। সঙ্গে পুলিসকে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ। আতঙ্কের ছবিটা গতকালও স্পষ্ট তৃণমূলের পতাকায় মোড়া কামদুনি গ্রামে। তৃণমূলের মাচা থেকেই ক্ষমাপ্রার্থনার বিধান দেওয়া হয়েছে টুম্পা কয়ালকে। কামদুনিকে সবক শেখাতে হাজির হন বিধাননগরের তৃণমূল বিধায়ক সব্যসাচী দত্ত। তবে কামদুনির প্রতিবাদী মহিলাদের রক্ষায় সক্রিয় হয়েছে মানবাধিকার কমিশন।
কামদুনি কাণ্ডের দশদিন পরে সোমবার গ্রামে এসেছিলেন তিনি। বিক্ষোভের মুখে পড়ে কামদুনির গায়ে সেঁটে দিয়ে গিয়েছিলেন সিপিআইএম তকমা। তারপরেই তৈরি হয় কামদুনিকে সবক শেখানোর মাস্টার প্ল্যান। বুধবার মুখ্যমন্ত্রী আবার দিলেন পুলিসি ব্যবস্থার হুমকি। শাসক দলের শাসানিতে কুঁকড়ে যেতে শুরু করে কামদুনি। তৃণমূলের ঝাণ্ডা লাগানো মাচা থেকে প্রতিবাদী টুম্পা কয়ালকে দেওয়া হয়েছে ক্ষমা চাওয়ার নির্দেশ। সব কিছু প্ল্যান মাফিক চলছে কিনা, তা দেখতে দুপুরেই কামদুনিতে পৌঁছে যান তৃণমূল বিধায়ক সব্যসাচী দত্ত।
কামদুনির মহিলাদের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত রাজ্য মানবাধিকার কমিশন রাজ্যের অতিরিক্ত মুখ্যসচিবকে তদন্ত করে তিন সপ্তাহের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলেছে। টুম্পা কয়াল, মৌসুমী কয়ালদের উপযুক্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করার জন্য উত্তর চব্বিশ পরগনার পুলিস সুপারকে অনুরোধ করেছে কমিশন। নিরাপত্তার জন্য কী ব্যবস্থা নে্ওযা হয়েছে দুসপ্তাহের সেই রিপোর্ট দিতেও বলেছে কমিশন। এলাকার সক্রিয় তৃণমূল কর্মীরাও মানছেন, নিরাপদ নয় কামদুনি।



First Published: Thursday, June 20, 2013 - 23:21


comments powered by Disqus