শিক্ষামন্ত্রককে বিব্রত করে অবাধে গণ টোকাটুকি মাধ্যমিকে

মাধ্যমিক পরীক্ষায় গণ টোকাটুকি নিয়ে পর্ষদের সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রীর বক্তব্য মিলল না। পরীক্ষার প্রথম দিন থেকেই টোকাটুকির খবর ছবি-সহ প্রকাশ্যে এলেও তা মানতে চায়নি মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু কিন্তু জানালেন, পরীক্ষায় টোকাটুকি রুখতে শিক্ষা দফতর ব্যবস্থা নেবে। মন্ত্রীর কথায় কাজের কাজ অবশ্য কিছু হল না। আজও জেলায় জেলায় চলল অবাধ গণ টোকাটুকি।

Updated: Mar 4, 2013, 11:41 PM IST

মাধ্যমিক পরীক্ষায় গণ টোকাটুকি নিয়ে পর্ষদের সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রীর বক্তব্য মিলল না। পরীক্ষার প্রথম দিন থেকেই টোকাটুকির খবর ছবি-সহ প্রকাশ্যে এলেও তা মানতে চায়নি মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু কিন্তু জানালেন, পরীক্ষায় টোকাটুকি রুখতে শিক্ষা দফতর ব্যবস্থা নেবে। মন্ত্রীর কথায় কাজের কাজ অবশ্য কিছু হল না। আজও জেলায় জেলায় চলল অবাধ গণ টোকাটুকি।
মাধ্যমিকের অঙ্ক পরীক্ষার সময় বনগাঁর কালুপুর হাই স্কুলে বহিরাগতরা অবাধে নকল সরবরাহ করে গেলেন পরীক্ষার্থীদের। একই ছবি ধরা পড়ল মালদার ইংরেজ বাজারের শান্তি দেবী গার্লস স্কুলেও।
সোমবার এভাবেই রাজ্যের বিভিন্ন পরীক্ষা কেন্দ্রে হয়ে গেল মাধ্যমিকের অঙ্ক পরীক্ষা।
পরীক্ষা শুরুর দিন থেকেই রাজ্যের নানা প্রান্তেই চলে এরকম গণ টোকাটুকি।
ইংরেজি পরীক্ষায় উত্তর দিনাজপুরের গোয়ালপোখর এক ও  দুই নম্বর ব্লকের একাধিক স্কুলে ছিল  এই ছবি। পুলিসের সামনেই অবাধে চলে টোকাটুকি।
১ মার্চ, উত্তর দিনাজপুরে গণটোকাটুকিকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্রে পরিণত হল গোয়ালপোখর এক নম্বর ব্লকের ঠিকরিবাড়ি স্কুল চত্বর। গণটোকাটুকিতে বাধা দেওয়ায় পুলিসকে আক্রমণ করে ক্ষিপ্ত জনতা। পুলিসকে লক্ষ্য করে বোমা, পাথর ছোঁড়া হয়। অবস্থা নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিস লাঠিচার্জ করে, ফাটানো হয় কাঁদানো গ্যাসের সেল। 
যদিও গণ টোকাটুকির অভিযোগ মানতে চায়নি মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। তবে সোমবার ঠিক উল্টো কথা বললেন শিক্ষা মন্ত্রী ব্রাত্য বসু।
মন্ত্রী গণ টোকাটুকি রোখার কথা বললেও সোমবার রাজ্যের বিভিন্ন পরীক্ষা কেন্দ্রের ছবি অন্য কথাই বলল।