মেধাতালিকায় এগিয়ে জেলা, পাশের হারে প্রথম পূর্ব মেদিনীপুর

গত কয়েকবছরের মত এবারও মাধ্যমিক পরীক্ষাতে ভাল ফল করল জেলার ছেলেমেয়েরা। মধ্যশিক্ষা পর্ষদ প্রকাশিত মেধা তালিকায় জেলার স্কুলগুলিরই রমরমা। পাশের হারে প্রথম স্থানে রয়েছে পূর্ব মেদিনীপুর। প্রথম দশের মেধাতালিকায় পুরুলিয়া জেলা স্কুলের জয়জয়কার।

Updated: May 29, 2012, 07:45 PM IST

গত কয়েকবছরের মত এবারও মাধ্যমিক পরীক্ষাতে ভাল ফল করল জেলার ছেলেমেয়েরা। মধ্যশিক্ষা পর্ষদ প্রকাশিত মেধা তালিকায় জেলার স্কুলগুলিরই রমরমা। পাশের হারে প্রথম স্থানে রয়েছে পূর্ব মেদিনীপুর। প্রথম দশের মেধাতালিকায় পুরুলিয়া জেলা স্কুলের জয়জয়কার। গতবছরের তুলনায় পাশের হারও বেড়েছে পুরুলিয়ায়।
৬৭৬ নম্বর পেয়ে সম্ভাব্য প্রথম চন্দননগরের শ্রী অরবিন্দ বিদ্যামন্দির স্কুলের সুহার্ত মল্লিক  
৬৭৫ নম্বর পেয়ে যৌথভাবে দ্বিতীয় জামালপুর হাইস্কুলের সুপ্রভ ঘোষ এবং আসানসোল রামকৃষ্ণ মিশন হাইস্কুলের শৌর্য রায়
৬৭৩ নম্বর পেয়ে সম্ভাব্য তৃতীয় জলপাইগুড়ি জেলা স্কুলের অর্পণ ঘোষ
৬৭২ নম্বর পেয়ে যৌথভাবে চতুর্থ বেড়াচাঁপা দেউলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শাহিন ইশা এবং পুরুলিয়া জেলা স্কুলের প্রীতম সেন
৬৭০ নম্বর পেয়ে যৌথভাবে সম্ভাব্য পঞ্চম বেলদা গঙ্গাধর অ্যাকাডেমির ছাত্র ময়ূখ মল্লিক, গড়গড়্যা সুভাষ হাইস্কুলের শৌভিক গোস্বামী, জলপাইগুড়ি ফণীন্দ্রদেব
ইন্সটিটিউশনের অর্কপ্রভ সাহা ও বাঁকুড়া মিশন গার্লস হাইস্কুলের ছাত্রী অনন্যা মণ্ডল। রাজ্যে মেয়েদের মধ্যে সম্ভাব্য প্রথম অনন্যা
৬৬৭ নম্বর পেয়ে যৌথভাবে সম্ভাব্য ষষ্ঠ পুরুলিয়া জেলা স্কুলের ঋজু সরকার
৬৬৫ নম্বর পেয়ে যৌথভাবে সম্ভাব্য দশম পুরুলিয়া জেলা স্কুলের দেবাশিস দাস
 
পাশের হারে পূর্ব মেদিনীপুরের পরেই আছে কলকাতা। জেলাভিত্তিক পাশের হার-
পূর্ব মেদিনীপুরে পাশ করেছে ৯১.৪২ শতাংশ পরীক্ষার্থী
 
কলকাতায় পাশের হার ৮৭.০১ শতাংশ
 
দক্ষিণ চব্বিশ পরগনায় পাশের হার ৮৫ শতাংশ
 
হাওড়ায় পাশের হার ৮৩.৭৯ শতাংশ
 
হুগলিতে পাশ করেছে ৮৩.৪৫ শতাংশ
 
নদিয়ায় পাশের হার ৮২.৮৫ শতাংশ
 
উত্তর চব্বিশ পরগনায় পাশের হার ৮২.২২ শতাংশ
 
পশ্চিম মেদিনীপুরে পাশ করেছে ৮১.৪১ শতাংশ পরীক্ষার্থী