মারধরের পর হুমকি মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীকে

হাবরায় মারধরে আহত মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী দীপঙ্কর মিস্ত্রিকে হাসপাতালে ঢুকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। মদের টাকা চেয়ে না পাওয়ায় ওই স্কুল ছাত্রকে মারধরের অভিযোগ রয়েছে এলাকারই কয়েকজন তৃণমূল কংগ্রেস আশ্রিত দুষ্কৃতীর বিরুদ্ধে।

Updated: Mar 1, 2012, 01:05 PM IST

হাবরায় মারধরে আহত মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী দীপঙ্কর মিস্ত্রিকে হাসপাতালে ঢুকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। মদের টাকা চেয়ে না পাওয়ায় ওই স্কুল ছাত্রকে মারধরের অভিযোগ রয়েছে এলাকারই কয়েকজন তৃণমূল কংগ্রেস আশ্রিত দুষ্কৃতীর বিরুদ্ধে। অভিযোগ, ইতিমধ্যেই স্থানীয় এক তৃণমূল নেতা প্রভাব খাটিয়ে এক অভিযুক্তকে থানা থেকে ছাড়িয়ে নিয়ে যায়। ওই অভিযুক্তকে আহত ছাত্রের পাশের বেডেই ভর্তি করে দেওয়া হয়েছে। তাকে দেখতে গিয়েই তৃণমূল কর্মী সমর্থকেরা ওই ছাত্রকে হুমকি দেয় বলে অভিযোগ।
২৬ ফেব্রুয়ারি, রাতে হাবড়া মডেল স্কুলের ছাত্র মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী দীপঙ্কর মিস্ত্রিকে মারধর করে কয়েকজন দুষ্কৃতী। ঘটনায় ছজনের নামে অভিযোগ দায়ের করা হয় থানায়। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জয় সমাদ্দার নামে আরও একজনের নামে দীপঙ্করের পরিবারের লোকেরা থানায় অভিযোগ জানালে পুলিস তাকে আটক করে। যদিও জয় সমাদ্দারের বিরুদ্ধে পুলিস কোনও অভিযোগ লিপিবদ্ধ করেনি বলে অভিযোগ।
এরপর মঙ্গলবার রাতেই  স্থানীয় তৃণমূল নেতা কাঞ্চন ঘোষের নেতৃত্বে একদল যুবক প্রভাব খাটিয়ে জয় সমাদ্দারকে থানা থেকে ছাড়িয়ে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ। ঘটনার প্রতিবাদে বুধবার এলাকায় মিছিল করে কংগ্রেস।
 
থানা থেকে ছাড়িয়ে জয় সমাদ্দার হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। দীপঙ্কর মিস্ত্রির বাড়ির লোক তাকে মারধর করেছে বলে থানায় পাল্টা অভিযোগ দায়ের করেছে সে। এই ঘটনা নিয়ে মুখ খুলতে চায়নি স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব। জেলাপুলিস সূত্রে জানা গেছে ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। অন্যদিকে ঘটনার প্রতিবাদে কংগ্রেসের মিছিল করা নিয়ে এলাকায় তৃণমূল ও কংগ্রেসের দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে চলে এল বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।