দূর্গাপুর গণধর্ষণ কাণ্ড: ১৪ দিনের জেল হেফাজত মূল অভিযুক্তর

দুর্গাপুর গণধর্ষণ কাণ্ডে মূল অভিযুক্ত রাজেশ কোরাকে ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দিল আদালত। আজ তাকে দুর্গাপুর মহকুমা আদালতে পেশ করা হয়। বুধবার দুপুরে রাজেশ কোরাকে নিজেদের হেফাজতে নেওয়ার আবেদন জানায় পুলিস।

Updated: Sep 12, 2012, 08:49 PM IST

দুর্গাপুর গণধর্ষণ কাণ্ডে মূল অভিযুক্ত রাজেশ কোরাকে ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দিল আদালত। আজ তাকে দুর্গাপুর মহকুমা আদালতে পেশ করা হয়। বুধবার দুপুরে রাজেশ কোরাকে নিজেদের হেফাজতে নেওয়ার আবেদন জানায় পুলিস। কিন্তু বিচারক সেই আবেদন খারিজ করে, তাকে ২৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন। মঙ্গলবার রাতে তাকে পিয়ালা গ্রামের বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে পুলিস। এই নিয়ে ধর্ষণকাণ্ডে মোট ১১ জনকে গ্রেফতার করল পুলিস। দুই অভিযুক্ত এখনও ফেরার।
আসানসোল-দুর্গাপুর কমিশনারেটের পুলিস কমিশনার অজয় নন্দ জানিয়েছেন ধৃতদের বেশিরভাগই প্রকাশনা সংস্থার ঠিকাকর্মী। তাদের সঙ্গে সংবাদপত্রের কোনও যোগাযোগ নেই বলে জানিয়েছেন তিনি। গতকালই ১০ জনকে আদালতে পেশ করা হয়।  তাদেরও চোদ্দ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। সোমবার সকালে সিটি সেন্টার ফাঁড়িতে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ওই মহিলা। তার ভিত্তিতে দুর্গাপুর সিটি সেন্টার সংলগ্ন বিভিন্ন এলাকা থেকে ১০ জনকে গ্রেফতার করে পুলিস। ধৃতদের টিআই প্যারেড করানো হবে বলে জানিয়েছেন অজয় নন্দ।
রবিবার রাতে দুর্গাপুরের সিটিসেন্টার সংলগ্ন জঙ্গলে নিয়ে গিয়ে এক মহিলাকে কয়েকজন দুষ্কৃতী গণধর্ষণ করে বলে অভিযোগ। আসানসোল থেকে গাড়িতে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি। সঙ্গে তাঁর স্বামীও ছিলেন। সেসময়ই ঘিরে ধরে কয়েকজন দুষ্কৃতী। মারধর করা হয় মহিলার স্বামীকেও। সোমবার সকালে সিটি সেন্টার ফাঁড়িতে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ওই মহিলা। দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে মেডিক্যাল পরীক্ষাও হয়েছে নির্যাতিতা মহিলার।