মুখ্যমন্ত্রী পার্কে সময় কাটালেন ৪৫ মিনিট! তবে গাইঘাটায় সময় নেই

মুখ্যমন্ত্রী একবার আসুন। চেয়েছিল গাইঘাটার নিহত কিশোরীর পরিবার। উত্তর চব্বিশ পরগনার চাঁদপাড়ায় সভা করলেও, পাঁচ কিলোমিটার দূরে গাইঘাটায় যাননি মুখ্যমন্ত্রী। ফেরার পথে নিউটাউনের ইকো ট্যুরিজম পার্কে কাটালেন পঁয়তাল্লিশ মিনিট।

Updated: Jun 20, 2013, 09:57 AM IST

মুখ্যমন্ত্রী একবার আসুন। চেয়েছিল গাইঘাটার নিহত কিশোরীর পরিবার। উত্তর চব্বিশ পরগনার চাঁদপাড়ায় সভা করলেও, পাঁচ কিলোমিটার দূরে গাইঘাটায় যাননি মুখ্যমন্ত্রী। ফেরার পথে নিউটাউনের ইকো ট্যুরিজম পার্কে কাটালেন পঁয়তাল্লিশ মিনিট।
মহাকরণ থেকে কামদুনি। কুড়ি কিলোমিটার দূরত্ব পেরোতে মুখ্যমন্ত্রীর লেগেছিল দশ দিন। কামদুনিতে গিয়েও পাঁচ মিনিটের বেশি সেখানে কাটাননি মুখ্যমন্ত্রী। বিক্ষোভের আবহে তড়িঘড়ি গ্রাম ছাড়েন। গ্রাম থেকে দুই কিলোমিটার দূরে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হন তিনি।
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বললেন, আমার কাজ ছিল তাই যেতে পারলাম না। কামদুনির মতোই গাইঘাটায় নিহত ছাত্রীর পরিবারেরও আর্জি ছিল মুখ্যমন্ত্রী একবার আসুন। মুখ্যমন্ত্রী বুধবার সেই পথেই গেলেন। গাইঘাটা থেকে পাঁচ কিলোমিটার দূরে চাঁদপাড়ায় সভাও করলেন।   
দত্তপুকুরেও সভা করেন তিনি। বাদ থেকে গেল শুধু গাইঘাটা। হয়তো ব্যস্ত ছিলেন। ফেরার পথে নিউটাউনে ইকো ট্যুরিজম পার্কে যান মুখ্যমন্ত্রী। চার কিলোমিটার হেঁটে ঘুরে দেখেন। সংস্কারের পরামর্শ দেন হিডকোর চেয়ারম্যানকে। 
রপর কলকাতায় ফেরা। ইকো ট্যুরিজম পার্কের মনোরম পরিবেশে পঁয়তাল্লিশ মিনিট কাটিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। সোমবার কামদুনির জন্য তাঁর বরাদ্দ ছিল পাঁচ মিনিট। আর গাইঘাটায় নিহত কিশোরীর পরিবার এখনও মুখ্যমন্ত্রীর অপেক্ষায়।