আবার শ্লীলতাহানি 'অপরাধ নগরী' বারাসতে

Last Updated: Saturday, February 2, 2013 - 11:15

আঁধার আর কাটছে না বারাসতে। ২০১১র চোদ্দই ফেব্রুয়ারি সারা রাজ্যকে শিহরিত করা রাজীব দাসের মৃত্যুর বহুদিন কেটে যাওয়ার পর আজও বারাসত রয়ে গেছে সেই তিমিরেই।
চলতি মাসের ১ তারিখে ফের শ্লীলতহানির ঘটনা ঘটে বারাসতে। প্রতিবাদ করায় ছাত্রীর বাবার মাথা ফাটিয়ে দিল দুষ্কৃতীরা।
শুক্রবার দুপুরে টিউশন পড়ে বাড়ি ফেরার পথে একাদশ শ্রেণীর ওই ছাত্রীর পিছু নেয় চারজন মদ্যপ যুবক। তার উদ্দেশ্যে কটুক্তি করা হয়। এরপর ওই ছাত্রীর শ্লীলতাহানি করে দুষ্কৃতীরা। রাস্তার মধ্যে ওই ছাত্রীর এক দাদা প্রতিবাদ করলে তাকে মারধর করে দুষ্কৃতীরা।
এর পর স্থানীয় বাসিন্দারা জড়ো হন। ওই সময়েই ছাত্রীর বাবা প্রতিবাদ জানালে ইট দিয়ে তাঁর মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয় । মাথায় একাধিক সেলাই করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে তাঁকে। ছাত্রীর পরিবারের তরফে আমিনপুর পুলিস ফাঁড়িতে অভিযোগ দায়ের করা হলে দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে পুলিস। বাকিদের খোঁজে তল্লাসি চলছে।
ছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে আমিনপুর ফাঁড়িতে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। পরিবারের দাবি, এরপর থেকেই অভিযোগ প্রত্যাহারের জন্য তাঁদের হুমকি দেওয়া হচ্ছে।
২০১১-র ১৪ ফেব্রুয়ারি বারাসতে জেলাশাসকের বাংলোর খুব কাছেই দুষ্কৃতীরা শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে এক তরুণীর। দিদির সম্ভ্রম বাঁচাতে গিয়ে খুন হন ভাই রাজীব দাস। তোলপাড় হয় রাজ্যজুড়ে। কিন্তু বদলায় না কিছুই।



First Published: Saturday, February 2, 2013 - 12:39


comments powered by Disqus