ধর্ষণকাণ্ডে অভিযুক্তের শাস্তির দাবিতে রণক্ষেত্র রঘুনাথগঞ্জ

পুলিস-জনতা খণ্ডযুদ্ধে  রণক্ষেত্রের চেহারা নিল মুর্শিবাদের রঘুনাথগঞ্জ থানার সায়রাপুর গ্রাম। ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত এক ব্যক্তির কড়া শাস্তির দাবিতে এ দিন দুপুর থেকে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন গ্রামবাসীরা। রঘুনাথগঞ্জ-লালগোলা রাজ্য সড়ক অবরোধ করা হয়। বেলা একটা থেকে শুরু হওয়া এই অবরোধ বিকেল গড়িয়ে গেলেও ওঠেনি।

Updated: Feb 27, 2013, 10:54 PM IST

পুলিস-জনতা খণ্ডযুদ্ধে  রণক্ষেত্রের চেহারা নিল মুর্শিবাদের রঘুনাথগঞ্জ থানার সায়রাপুর গ্রাম। ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত এক ব্যক্তির কড়া শাস্তির দাবিতে এ দিন দুপুর থেকে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন গ্রামবাসীরা। রঘুনাথগঞ্জ-লালগোলা রাজ্য সড়ক অবরোধ করা হয়। বেলা একটা থেকে শুরু হওয়া এই অবরোধ বিকেল গড়িয়ে গেলেও ওঠেনি।
পুলিস ঘটনাস্থলে পৌঁছলে পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। অবরোধকারীদের হঠাতে লাঠিচার্জ করা হয়। ক্ষুব্ধ বিক্ষোভকারীরা এরপর একের পর এক গাড়িতে ভাঙচুর চালাতে শুরু করে। অবস্থা সামাল দিতে কাঁদানে গ্যাস ব্যবহার করে পুলিস। ঘটনাস্থলে যান জেলা পুলিস সুপার। ২০ জন অবরোধকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
গ্রামে টহলদারী চালাচ্ছে র‍্যাফ এবং পুলিসবাহিনী। গত ২৬ ফেব্রুয়ারি সায়রাপুর গ্রামেরই বাসিন্দা ১৪ বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে। চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যেই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে পুলিস। তবে এরপর থেকে অভিযুক্তকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য পুলিসের ওপর প্রভাব খাটানোর  চেষ্টা  চলছে বলে অভিযোগ।